পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

বাংলাদেশ সঠিক পথেই রয়েছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-11-15 18:54:58 BdST

bdnews24

আর্থ সামাজিক রূপান্তরের যে প্রক্রিয়া বর্তমানে চলমান রয়েছে ২০৪১ সালের মধ্যে সেটিকে পূর্ণাঙ্গ রূপ দিতে বাংলাদেশ সঠিক পথেই রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম. এ. মান্নান।

শনিবার বেসরকারি ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের (আইইউবি) সোশ্যাল সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ বিভাগ আয়োজিত দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, “২০৪১ সালই সেই বছর যখন আমাদের শক্তির জায়গাগুলো সঠিকভাবে বুঝতে পারবো এবং তার পরিপূর্ণ সদ্ব্যবহারের মাধ্যমে উন্নয়নের প্রক্রিয়াকে আরও এগিয়ে নিতে পারব।

“পরিসংখ্যান বলছে ব্যপারটা অসম্ভব নয় এবং আমি গর্বিত যে এটা আমাদের সময়ে হয়েছে, অর্থাৎ গত ১০-১১ বছরে।”

‘বাংলাদেশ ইন ২০৪১: নোশনস অ্যান্ড ন্যারেটিভস অফ ডাইভার্সিফিকেশন অ্যান্ড ট্রান্সফর্মেশন’ শীর্ষক এ সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেহমান সোবহান বলে আইইউবিএ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

অধ্যাপক সোবহান বলেন, বাংলাদেশের মানুষের মাঝে উদ্যোক্তা প্রতিভার এক অভাবনীয় উন্মেষ ঘটেছে এবং সেটার সূচনা হয়েছে ৫০ বছর আগে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের মাধ্যমে।

আইইউবি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এ মতিন চৌধুরী বলেন, “বাংলাদেশের জন্য গত ৫০ বছর কেমন ছিল আমরা তা নিয়ে কথা বলেছি। পরবর্তী ধাপে যেতে হলে কী করতে হবে তা নিয়েও কথা বলেছি। এক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিতে হবে আমাদের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদেরই।”

আইইউবির উপাচার্য তানভীর হাসান বলেন, “বাংলাদেশের মানুষ কঠোর পরিশ্রমী এবং কষ্টসহিষ্ণু। চ্যালেঞ্জ নিতে তারা কখনো পিছপা হয় না। উন্নয়ন তরান্বিত করতে আমাদের জরুরি ভিত্তিতে মানবসম্পদ উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে হবে।”

সম্মেলনে উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে আরও ১৪টি পৃথক সেশন ছিল। দেশি শিক্ষাবিদ ও গবেষকদের পাশাপাশি বেশ কয়েকজন বিদেশি বিশেষজ্ঞও অনলাইনে অংশ নেন এ সম্মেলনে।

রোহিঙ্গা ও শরণার্থী প্রশ্ন, তরুণদের ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারে দায়িত্বশীলতা, জনস্বাস্থ্য, লোকপ্রশাসন ও অনানুষ্ঠানিক অর্থনীতি, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন, বৈদেশিক নীতি ও রাজনীতি, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ছিল অলোচনার অন্যতম বিষয়বস্তু।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অধ্যাপক আতিউর রহমান, জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা (ইউএনইচসিআর) এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি জোহানেস ভান ডি ক্ল, বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) এর দূত চার্লস হোয়াইটলি ও আইইউবি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এ মতিন চৌধুরী সম্মলনে বক্তব্য রাখেন।