হাজার নদীর গল্প নিয়ে চলচ্চিত্রে মার্ক অ্যাঞ্জেলো

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-06-18 02:35:00 BdST

bdnews24

স্বচ্ছ ও বহতা নদীর গল্প নিয়ে আসছে শরতে এক চলচ্চিত্র উৎসবে পর্দা উঠবে ‘লাস্ট প্যাডল: ১০০০ রিভারস, ওয়ান লাইফ’র।

আত্মজীবনীমূলক ধাঁচের এই চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়েছে বিশ্ব নদী দিবসের উদ্যোক্তা মার্ক অ্যাঞ্জেলোকে ঘিরে। তাকে দেখাও যাবে এই চলচ্চিত্রে।

৭০ ছুঁই ছুঁই এই নদীকর্মী এরমধ্যে ঘুরে বেড়িয়েছেন হাজার নদী। সম্প্রতি তার এক সাক্ষাৎকার নিয়েছে কানাডিয়ান জিওগ্রাফিক ডটসিএ।

ব্রিটিশ-কলম্বিয়া নদী দিবসের ৪০ বছর ও বিশ্ব নদী দিবসের ১৫ বছর উদযাপনকে সামনে রেখে নদী পুনরুদ্ধারের বার্তা নিয়ে নির্মিত এই চলচ্চিত্রের সাথে নিজের জড়ানোর কথা বলেন মার্ক।   

কানাডিয়ান জিওগ্রাফিকের ভাষ্যে, বর্ণমালার ক্রমানুসারে গড় গড় করে একের পর এক নদীর নাম বলে যেতে পারেন তিনি।

“এই সিনেমা মানুষকে তার নিজের অধিকার ও টেকসই ভবিষ্যৎ প্রতিষ্ঠায় একজন পরিবেশবিদ ও নদী চ্যাম্পিয়ন হতে উদ্বুদ্ধ করবে”, বলেন মার্ক অ্যাঞ্জেলো। 

“নদীর সঙ্কটগুলোও উঠে এসেছে এই সিনেমায়; বিশ্বের কোনায় কোনায় থাকা মানুষ নিজ এলাকার নদীর সাথে এসবের মিল খুঁজে পাবে।”

কানাডীয় এই নদীকর্মী মনে করেন, নদীর সুরক্ষায় মানুষকে আরও বেশি উদ্যমী হতে হবে।

তিনি বলেন, “আমি এখন পর্যন্ত অনেক নদী পুনরুদ্ধার উদ্যোগে জড়িত ছিলাম। যেখানে নদী দূষণে একেবারে বিপর্যস্ত ছিল, আমরা এক সাথে তা পরিষ্কারে কাজ করেছি।”

নদী পুনরুদ্ধারের এমন কাজ শেষ করতে ১০ বছরও লেগে যায়। এজন্য নদী দূষিত হওয়ার আগেই এর সুরক্ষায় সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিলেন বিশ্ব নদী দিবসের প্রতিষ্ঠাতা।

আসছে জুলাইয়ে কানাডিয়ান জিওগ্রাফিকের ওয়েবসাইটে মুক্তি পাবে এই চলচ্চিত্রের ট্রেইলার।

প্রতি বছর সেপ্টেম্বরের চতুর্থ রোববার পালন করা হয় বিশ্ব নদী দিবস। ১৯৮০ সালে প্রথম নদী দিবস পালন শুরু করেন মার্ক অ্যাঞ্জেলো। পরে ২০০৫ সাল থেকে জাতিসংঘ ও এর সহযোগী সংস্থাগুলো এই দিবস পালনে এগিয়ে আসে।

প্রতি বছর ৭০টির মত দেশে কয়েক লাখ মানুষ বিশ্ব নদী দিবস পালন করছে বলে জানাচ্ছে মার্ক অ্যাঞ্জেলোর ওয়ার্ল্ড রিভারস ডে সংগঠন। 

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান প্রধান হওয়ার পাশাপাশি মার্ক অ্যাঞ্জেলো ব্রিটিশ কলম্বিয়া ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির রিভার ইনস্টিটিউটের এমিরেটস চেয়ারও।