পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

পরিবেশ ছাড়পত্র দেওয়ার ক্ষেত্রে দৃঢ়তা আশা করেন সুলতানা কামাল

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-05 21:12:32 BdST

bdnews24

জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের ক্ষতিকর কোনো প্রকল্প যাতে না গ্রহণ করা হয় এবং কোনো প্রতিষ্ঠানকে পরিবেশগত ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত দৃঢ়তার সঙ্গে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সভাপতি সুলতানা কামাল।

শনিবার বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে ‘শহরের বাস্তুসংস্থানের উপর বায়ু এবং শব্দ দূষণের প্রভাব’ শিরোনামে এক ভার্চুয়াল সেমিনারে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাপা ও বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস), স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে এ ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়।

সুলতানা কামাল বলেন, “প্রকৃতি আমাদেরকে তার সবকিছু উজাড় করে আমাদের হাতে তুলে দিচ্ছে অথচ আমরা প্রকৃতিকে সমুলে উজাড় করে দিচ্ছি।”

সম্প্রতি সরকারের কিছু প্রকল্পের ছাড়পত্র দেওয়ার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, “জনস্বাস্থ্য পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর যে কোনো প্রকল্প যেন সামনে না এগিয়ে যায়, সে জন্য সময়মত পরিবেশগত ছাড়পত্র/অনুমতি প্রদান কিংবা না প্রদানের সিদ্ধান্ত দৃঢ়তার সাথে গ্রহণ করার জন্য পরিবেশ অধিদপ্তর এবং মন্ত্রণালয়ের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”

কোনো প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র নির্ধারিত সময়ের মধ্যে না পেলে তাদের ‘মৌনতা সম্মতির লক্ষণ’ হিসেবে ধরে নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গত মঙ্গলবার একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রী এমন নির্দেশনা দেন বলে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানিয়েছেন।

ওয়েবিনারে পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, দীর্ঘদিন ধরে প্রকৃতিকে ধ্বংসের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। এখনই তা বন্ধ করতে হবে। এ নিয়ে পরিবেশ অধিদপ্তর কাজ করছে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, “শব্দ ও বায়ুদূষণ বর্তমানে অসহনীয় পর্যায়ে চলে গেছে। শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে মানুষের মাঝে গনসচেতনতা বৃদ্ধির প্রয়োজন।”

পরিবেশ অধিদপ্তর বিআরটিসি, বিআরটিএ এবং দেশের সব সিটি কর্পোরেশনকে তাদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে শব্দ ও বায়ুদূষণের বিষয়টি রাখার অনুরোধ জানান তিনি।

বাপার সাধারণ সম্পাদক শরীফ জামিলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা ও রোগ নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের (আইইডিসিআর) সাবেক পরিচালক ও বাপার পরিবেশ স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মসূচির আহ্বায়ক এ এম জাকির হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মো. কামরুল হাসান, ওয়ান হেলথ মুভমেন্ট বাংলাদেশের জাতীয় সমন্বয়ক নীতিশ চন্দ্র দেবনাথ, স্টামফোর্ড ইউনির্ভাসিটির পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগ একাডেমিক উপদেষ্টা গুলশান আরা লতিফা, বাপার যুগ্ম সম্পাদক ও স্টামফোর্ড বায়ুমন্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্রের (ক্যাপস) পরিচালক অধ্যাপক আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার