২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন মাজহারুল আনোয়ার

  • নিজস্ব প্রতিবেদক ও গ্লিটজ প্রতিবেদক,  বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-06 17:00:43 BdST

bdnews24

স্নায়ু সমস্যা নিয়ে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে রোববার দুপুরে বাসায় ফিরছেন গীতিকার ও চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব গাজী মাজহারুল আনোয়ার।

হাসপাতাল থেকে তার স্ত্রী জোহরা গাজী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে সাড়ে ১২টার দিকে ডাক্তাররা জানিয়েছেন, ওনার অবস্থা গুরুতর নয়। আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শেষে দেড়টার মধ্যেই বাসায় ফিরছেন তিনি।

হাসপাতালে চিফ অফ কমিউনিকেশনস অ্যান্ড বিজনেস ডা. সেগুফা আনোয়ার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, গত শনিবার বিকালে তিনি নিউরো মেডিসিন বিভাগে ভর্তি রয়েছেন। তার তত্ত্বাবধান করছেন হাসপাতালের স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ মুজিবুর রহমান।

সেগুফা আনোয়ার বলেন, “গত শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তিনি যখন প্রথম হাসপাতালে আসেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার, তখন বলছিলেন তার মাথা ঘুরছে। আমরা তাকে ইমার্জেন্সিতে নিয়ে যাই সাথে সাথে। পরে চিকিৎসা দেওয়ার পর কিছুটা সুস্থ হলে তিনি অনেকটা জোর করে হাসপাতাল থেকে চলে যান।

পরে বিকালের দিকে আবারও অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে তার পরিবার। পরে তাকে ভর্তি করিয়ে নিই।”

গীতিকারের স্ত্রী বলেন, “মাথা ঘুরে উঠলে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কায় ছিলেন। কিন্তু ডাক্তাররা পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়েছেন ওরকম কিছু ঘটেনি।”

এর আগে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। ডাক্তাররা আগের ঔষুধ নিয়মিত সেবনের পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানান জোহরা গাজী।

একুশে পদক প্রাপ্ত এ গীতিকার, পরিচালকের জন্ম ১৯৪৩ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি। ১৯৬৪ সাল থেকে রেডিও পাকিস্তানে গান লেখা শুরু করেন। পাশাপাশি বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্মলগ্ন থেকেই নিয়মিত গান ও নাটক রচনা করেন।

অসংখ্য জনপ্রিয় বাংলা গানের গীতিকার তিনি। তার লেখা গানগুলোর মধ্যে আছে- ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’, ‘একতারা তুই দেশের কথা বলরে এবার বল’, ‘একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়’।

১৯৬৭ সালে চলচ্চিত্রের সাথে যুক্ত হওয়ার পর থেকে কাহিনী, চিত্রনাট্য, সংলাপ ও গান লেখাতেও দক্ষতা দেখান তিনি। তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘নান্টু ঘটক’ ১৯৮২ সালে মুক্তি পায়। তার পরিচালিত চলচ্চিত্রের সংখ্যা ৪১ টি।