২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫

ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসব শুরু

  • নিজস্ব প্রতিবেদক,  বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-10 22:00:49 BdST

bdnews24

সদ্যবিদায়ী অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের হাত দিয়ে শুরু হল সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব।

বৃহস্পতিবার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে উৎসব উদ্বোধন করে মুহিত অসঙ্গতি দূর করে পরিশীলিত সমাজ বিনির্মাণে চলচ্চিত্রের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, “চলচ্চিত্র অত্যন্ত শক্তিশালী মাধ্যম। তবে এটা খুব পুরানো না। সম্ভবত আশি বছরের মতো হয়েছে আমরা সবাক চলচ্চিত্র পেয়েছে। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রেক্ষাগৃহে বসে পৃথিবীর অজানা দেশকে চেনা, অজানা সভ্যতার সঙ্গে পরিচয় হওয়ার সুযোগ পাই।”

নয় দিনের এই উৎসবে ৭২ দেশের ২১৮টি চলচ্চিত্র দেখানো হবে।

এটা বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য বাড়তি সুযোগ হিসেবে দেখছেন মুহিত।

তিনি বলেন, “আন্তর্জাতিক উৎসবটি অত্যন্ত মূল্যবান এবং জাতীয় জীবনে উচ্চমার্গীয় অবস্থান করে।”

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

তিনিও আশা করেন, ভালো চলচ্চিত্র সমাজকে পরিবর্তন করে দিতে পারে।

“চলচ্চিত্রে মানুষের ব্যক্তিজীবনের আবেগ-অনুভূতির প্রতিফলন ঘটে; মানুষের ভালোবাসা, সুখ-দুঃখ, বিষণ্ণতা, ইর্ষা সবই চলচ্চিত্রের চরিত্রের মধ্যে দিয়ে উঠে আসে চলচ্চিত্রে। যার সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তনে ভূমিকা রাখে।”

চলচ্চিত্র উৎসবটি ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণে নির্মাতাদের উদ্বুদ্ধ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অন্যান্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন তথ্য সচিব আবদুল মালেক, উৎসব কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ম হামিদ ও উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল।

উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে প্রদর্শিত হয় তুরস্ক-জর্ডানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘দ্য গেস্ট’; চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন তুরস্কের নির্মাতা আন্দাজ হাজানেদারগলু।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য নৃত্য পরিবেশন করে ভাবনা নাট্যদল।

উদ্বোধনী দিনে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ছাড়াও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তন, অঁলিয়াস ফ্রঁয়েজ মিলনায়তন ও যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমায় বিভিন্ন চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়েছে।

শুক্র ও শনিবার রাজধানীর আলিয়ঁস ফ্রঁসেজে সকাল ৯টা থেকে দিনব্যাপী আয়োজন করা হবে ‘পঞ্চম আন্তর্জাতিক উইমেন ফিল্ম মেকারস্ কনফারেন্স।’

উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল জানান, এখানে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নারী চলচ্চিত্র নির্মাতা ও ব্যক্তিত্বরা অংশ নেবেন। বর্তমান বিশ্বে নারী নির্মাতা-কলাকুশলীদের অবস্থা ও কর্মতৎপরতা নিয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপনের পাশাপাশি তাদের কাজ করার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা ও উত্তরণের উপায় নিয়ে মতবিনিময় করবেন নির্মাতারা।

এবার এশিয়ান প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অফ দ্য ওয়ার্ল্ড, চিলড্রেনস ফিল্ম, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম ও উইমেন্স ফিল্ম বিভাগে ৭২টি দেশের ২১৮টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এর মধ্যে পূর্ণদৈর্ঘ্য (৭০ মিনিটের বেশি) ১২২টি চলচ্চিত্র ও স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন ৯৬টি চলচ্চিত্র রয়েছে।

উৎসবে জুরি হিসেবে বিদেশি চলচ্চিত্রকারদের সঙ্গে আছেন দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন ও নির্মাতা রুবাইয়াত হোসেন।

রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজনে সহযোগিতা করছে অর্থ মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ও ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাস।