বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে কাঁদলেন অঞ্জন দত্ত, লিখলেন গান

  • সাইমুম সাদ, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-24 21:31:07 BdST

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাড়িতে এসে তার রক্তে ভেজা সিঁড়ি আর বুলেটের চিহ্ন দেখে আবেগতাড়িত হয়ে কাঁদলেন পশ্চিমবঙ্গের সংগীতশিল্পী অঞ্জন দত্ত; বাঙালি জাতির মুক্তির কাণ্ডারিকে নিয়ে লিখে ফেললেন গান।

শুক্রবার সকালে ঢাকায় নেমেই ধানমণ্ডির ৩২ নম্বর রোডের বাড়ি দেখতে চলে যান তিনি; প্রায় ঘণ্টা খানেক ধরে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের স্মৃতি বিজড়িত বাড়িটি ঘুরে দেখেন এ সংগীতশিল্পী।

বিকালে রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট প্রাক্তনী সংসদের আয়োজনে ‘সিনেমা আড্ডা’য় বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও তার স্মৃতিবিজড়িত বাড়ি নিয়ে নিজের অনভূতির কথা ভাগ করলেন দর্শকদের সঙ্গে।

ছবি: সাইমুম সাদ

ছবি: সাইমুম সাদ

তিনি বললেন, “সকালে ঢাকায় নেমেই ইচ্ছা হলো, উনার বাড়িটা দেখি। সেখানে আমি এক ঘণ্টা ছিলাম; এর মধ্যেই একটা গান লিখে ফেলেছি। ওখানে বসে আমি কাঁদলাম আর গান লিখলাম।”

“…ওখানে গেলে না, কেমন যেন লাগে; অদ্ভূত লাগে। সিঁড়ি দিয়ে উনি নেমে এসেছিলেন; ওখানে গুলি করেছিলেন; ওখানে গুলির দাগ লেগে আছে। ছেলের (শেখ রাসেল) বয়স ছিল মাত্র দশ বছর।”

মুজিববর্ষ ও যোগদানের ৭ম বর্ষ পূর্তি উপলক্ষ্যে ৩১তম বিসিএস ক্যাডার এসোসিয়েশনের আমন্ত্রণে ঢাকায় আসেন অঞ্জন দত্ত।
তা‌দের আ‌য়োজ‌নে শুক্রবার রাতে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে গানটি পরিবেশন ক‌রেন এ সংগীত‌শিল্পী।

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে গিয়ে কোনো পরিকল্পনা ছাড়াই গানটি লিখে ফেললেন বলে জানান তিনি; কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সুর তুলে পরিবেশন করছেন মঞ্চে।

অঞ্জন দত্ত বলেন, “এটা (গান) বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ থেকে আসেনি; সেই ঘরটার মধ্যে দাঁড়িয়ে ভেবেছিলাম ‘ওহ গড, কী হয়েছিল এখানে’! এইটা (ঘর) থেকেই বেরিয়ে এলো গানটা।”

তার ধারণা গানটি ‘হিট’ করবে। কারণ হিসেবে বললেন, “ইটস নট জাস্ট বিকজ অব দ্যাট। এটার মধ্যে আমার সময়, আমার দেশ-এই ব্যাপারটা থাকছে।”

সিনেমা আড্ডায় সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ, জাদুঘরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউটের শিক্ষক সাজ্জাদ জহির, ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসবের পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামালসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।