নেটফ্লিক্সে ওয়াহিদের শিশুতোষ এনিমেটেড শো ‘স্টারবিম’

  • গ্লিটজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-25 15:18:12 BdST

নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেতে যাচ্ছে একদম প্রি-স্কুলের বাচ্চাদের জন্য একটি এনিমেটেড শো, স্টারবিম। এই শো-এর ডেভেলপমেন্টের পর্যায়ে ক্রিয়েটিভ কনসালটেন্ট হিসেবে কাজ করছেন ওয়াহিদ ইবনে রেজা।

পড়ালেখা এবং কাজের সুবাদে ওয়াহিদ ইবনে রেজা এখন আছেন নর্থ আমেরিকাতে। নিজের সামাজিক মাধ্যমে এই ধরণের কাজ এটাই প্রথম বলে জানান তিনি।

শো-টির ট্রেইলার মুক্তি পেয়েছে কিছুদিন আগে।

কাজটি নিয়ে তিনি জানান, “এই কাজটি পাবার পিছনের গল্পটা মজার। আমি কেন জানি সব সময় একাধিক কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে পছন্দ করি। এই স্বভাবটা আমার আম্মুর কাছ থেকে পাওয়া। সে সব সময় হাজারো কাজ একসাথে করতো। আমি হাজার খানেক না হলেও, ৪-৫টা কাজে ব্যস্ত থাকতে চেষ্টা করি সব সময়। আমার কাছে মনে হয় এতে নিজের বিভিন্ন স্কিল ডেভেলপ করার এবং নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ নেয়ার সুযোগ থাকে।”

তিনি আরও জানান, ২০১৬ সালে মেথড ভিএফএক্স স্টুডিওতে, ভিএফএক্স কোঅর্ডিনেটর হিসেবে কাজ করার সময় এনিমেটেড শর্টফিল্ম দ্য প্যারানয়েড ক্যাট বানিয়েছিলেন। তখন সবে । ক্যাপ্টেন আমেরিকা: সিভিল ওয়ারে মাত্র কাজ শেষ করেছেন।

সেই শর্টফিল্ম নিয়ে ফেস্টিভ্যাল ঘুরে এসে অফিসে জয়েন করেন ডক্টর স্ট্রেঞ্জের ভিএফএক্স দলে। যেই ফিল্মটি পরে অস্কার নমিনেশন পায় ভিএফএক্স এর জন্য।

চাকরির পাশাপাশি মাথায় ছিল নিজের কিছু করার ইচ্ছা। আমাজন তখন তাদের টিভি-ফিল্ম স্টুডিওতে ওপেন সাবমিশন নিচ্ছে।

বাইরের এই দেশগুলোতে, একটি সিরিজ বা মুভি যখন পিচ করা হয়, মানে কোন স্টুডিওর কাছে জমা দেয়া হয়, তখন একটি বিশাল ডকুমেন্ট বানানো হয়। যেটা ৫-৬ পৃষ্ঠা থেকে শুরু করে ৩০-৪০, কোন কোন ক্ষেত্রে শত পৃষ্ঠা পর্যন্ত হতে পারে। এই ডকুমেন্ট কে বলা হয় বাইবেল।

সেই কাজটা তিনি করে ফেলেন এক ফাঁকে।

ওয়াহিদ জানান, “আমি লিখে ফেললাম তিনটা এনিমেটেড সিরিজের মিনি বাইবেল। মাত্র এনিমেশন ফিল্ম বানিয়েছিলাম দেখে কিনা জানিনা, মাথায় এনিমেশন ঘুরছিল। আর্টের, দ্য প্যারানয়েড ক্যাট এর প্রোডাকশন ডিজাইনার তামিম ভাইয়ের কাছে সাহায্য চাইলাম। উনি অবিশ্বাস্য দ্রুত গতিতে তিনটারই আর্ট করে ফেললেন। কিন্তু প্রত্যাখানের দায় জুটলো অবশেষে।”

এরপর ২০১৭ সালে একটা নেটওয়ার্কিং ইভেন্টে যান তিনি। ভ্যাঙ্কুভার বেস্ড বিভিন্ন প্রোডাকশন কোম্পানি ওপেন সাবমিশন নিবে রাইটারদের কাছ থেকে। সেখানে একজন এক্সিকিউটিভ আইডিয়া চাচ্ছিলেন তার এনিমেশন স্টুডিওর জন্য।

নানা ঘটনার পর মিনি বাইবেলগুলো দেখে তাকে নিযুক্ত করা হলো ক্রিয়েটিভ কনসালটেন্ট হিসেবে।

ওয়াহিদ বলেন, “সেই প্রথম নর্থ আমেরিকাতে আমার ক্রিয়েটিভ গুনের জন্য মানুষ আমাকে হায়ার করলো। তার প্রায় ৩ বছর পর আজকে সিরিজটার ট্রেইলারটি দেখ ভাল লাগলো। মনে হলো, বাহ্, এর শুরুতে, ক্রিয়েটিভ জায়গাতে, একটু হলেও আমার কন্ট্রিবিউশন ছিল। একদম ছোট বাচ্চাদের এবং তাদের বাবা-মাদের আশা করি ভাল লাগবে।”

২০১৯-২০২০ এ আরেকটি লাইভ এখন  নেটফ্লিক্সের জন্য সিনেমার কনসালটেন্সি করেছেন এখন ওয়াহিদ ।

বাংলাদেশের সৃজনশীল কর্মকাণ্ডের পরিচিত মুখ ওয়াহিদ ইবনে রেজা বাপ্পি একটা সময় আরও পরিচিত হয়ে উঠেন হুমায়ূন আহমেদের হিমু চরিত্রে অভিনয় করে।

বর্তমানে তিনি বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কাজ করছেন দেশে-বিদেশের সৃজনশীল অঙ্গনে।