পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

পরীমনির অভিযোগ: অবশেষে নিন্দা জানাল শিল্পী সমিতি

  • গ্লিটজ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-15 02:04:49 BdST

bdnews24

চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা, হত্যাচেষ্টার অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নিরব ভূমিকা নিয়ে সমালোচনার মধ্যে নিন্দা জানিয়ে সরব হল সংগঠনটি।

সোমবার মধ্য রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, “সম্প্রতি সাভারের বিরুলিয়া এলাকায় বোট ক্লাবে চিত্রনায়িকা পরীমনির সঙ্গে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছে।

“এ বিষয়ে ইতোমধ্যেই মামলা রুজু হয়ে গেছে এবং কিছু আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে। উক্ত মামলায় দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি পরীমনির সার্বিক সহযোগিতা করতে দৃঢ় অঙ্গীকারবদ্ধ।”

সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ জানানোর পর পরদিন সোমবার সকালে সাভার থানায় ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। পরে উত্তরা থেকে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

সোমবার সকাল থেকেই সহকর্মীর উপর এমন অন্যায়ের প্রতিবাদ জানিয়ে ‘জাস্টিস ফর পরীমনি’ হ্যাশট্যাগে ফেইসবুকে সোচ্চার হন জয়া আহসান, ভাবনা, গিয়াসউদ্দিন সেলিম, নাবিলাসহ বেশ কয়েকজন অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতা।

তবে সংগঠনগতভাবে কোনো কর্মসূচি আসেনি।

অনেকে বলছেন, বছরজুড়ে মশক নিধন অভিযান, পিকনিক ও ভোটের প্রচারে অংশ নিয়ে আলোচনার খোরাক জোগালেও এখন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি চুপ কেন?

প্রশ্ন করা হলে চলচ্চিত্র শিল্পীদের স্বার্থ সংরক্ষণে গঠিত সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান সোমবার বিকালে গ্লিটজকে বলেন, “এখন করোনাকাল; তার উপর সরকারকে বিব্রত করতে চাই না। সরকার এত সুন্দর পদক্ষেপ নিয়েছে। মামলা নিয়ে নিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে অ্যারেস্টও করেছে। এখন এটার আর প্রতিবাদ কী হওয়া উচিত? আদালতের উপর প্রতিবাদ করে লাভ হবে না। আমরা চাই এটার সুষ্ঠু তদন্ত হোক ও সুষ্ঠু বিচার হোক।”

রোববারের সংবাদ সম্মেলনে পরীমনি দাবি করেছিলেন, চার দিন আগে ঢাকা বোট ক্লাবে হেনস্তা হওয়ার পর তিনি জায়েদ খানের সহযোগিতা চাইলেও আশ্বাস ছাড়া কিছুই পাননি।

বিষয়টি নিয়ে রোববার রাতে জায়েদ খান গ্লিটজকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার পরীমনি তাকে বিষয়টি জানিয়েছিলেন এবং পুলিশ প্রধান বেনজীর আহমেদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

জায়েদ খান বলেন, তিনি পরীমনিকে রোববার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলেছিলেন, স্থানীয় থানায় নিয়ে যেতেও চেয়েছিলেন। কিন্তু পরীমনি তাকে বলেছিল যে পুলিশ তার কথা শুনছে না।

ধর্ষণচেষ্টার মতো গুরুতর অভিযোগ নিয়ে যাওয়ার পরও শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে কেন তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া দেখালেন না- জানতে চাইলে জায়েদ খান বলেছিলেন, “শিল্পী সমিতি কি কোনো আদালত?

“আমি তাকে শিল্পী সমিতিতে একটা লিখিত দিতে বললাম। বললাম যে আইজিপি রাজশাহীতে গেছেন। উনি ফিরুক, তারপরও রোববার দেখা হতে পারে। পরীমনি থানা পুলিশের কাছে যেতে চাচ্ছিলেন না।”