পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘রেহানা মরিয়ম নূর’ দেখে সেন্সর বোর্ড কী বলছে

  • গ্লিটজ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-15 22:18:40 BdST

bdnews24
‘রেহানা মরিয়র নূর’ চলচ্চিত্রের দৃশ্যে বাঁধন।

নির্মাতা আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের আলোচিত চলচ্চিত্র ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে প্রদর্শনের পর সিনেমাটিকে সেন্সর সনদ দেওয়ার বিষয়ে বোর্ডের সদস্যরা ‘একমত’ হয়েছেন বলে জানালেন ভাইস চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দীন।

জুলাইয়ে ৭৪তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের অফিসিয়াল সিলেকশনে জায়গা পাওয়া সিনেমাটি উৎসবে প্রদর্শনের পর বাংলাদেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও আলোচিত হয়েছে।

দেশের সিনেমা হলে মুক্তির জন্য সেন্সর বোর্ডের অনুমোদন পেতে রোববার সিনেমাটি সেন্সর বোর্ডে জমা দিয়েছেন প্রযোজকরা; বুধবার সন্ধ্যায় প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন বোর্ডের সদস্যরা।

মো. জসিম উদ্দীন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, সিনেমার কোনো দৃশ্য কিংবা কোনো সংলাপ কর্তনের কোনো পরামর্শ দেননি বোর্ডের সদস্যরা।

“ছবিতে কোনো পর্যবেক্ষণ (কর্তন) নেই। মোটামুটি ঠিক আছে। তবে ছাড়পত্র এখনও দেওয়া হয়নি। সুপারিশ করার পর সনদ দেওয়া হবে। সিনেমাটি প্রদর্শনের ক্ষেত্রে বোর্ডের সদস্যরা একমত হয়েছেন।”

সেন্সর বোর্ডের সচিব মমিনুল হক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সিনেমাটি সিনেমা হলে প্রদর্শনযোগ্য হিসেবে বোর্ড বিবেচনা করেছে। সেন্সর বোর্ড সার্টিফিকেট দেবে।”

তবে এখনই এটিকে সেন্সর বোর্ডের ‘অনুমোদন’ হিসেবে ধরা যাবে না বলে জানান মমিনুল।

তার ভাষ্যে, “সার্টিফিকেট হাতে পাওয়ার আগে সেটাকে প্রক্রিয়াগতভাবে সেন্সর বোর্ডের ‘অনুমোদন’ বলা যাবে না।”

‘রেহানা মরিয়ম নূর’ অক্টোবরে মুক্তির পরিকল্পনা  

নির্বাহী প্রযোজক এহসানুল হক বাবু জানান, সেন্সর বোর্ডের সনদ হাতে পেলে অক্টোবরের শেষভাগে সিনেমাটি মুক্তির পরিকল্পনা করেছেন তারা।

রেহানা মরিয়ম নূর নামে মেডিকেল কলেজের একজন সহকারী অধ্যাপকের জীবন সংগ্রামের গল্পে নির্মিত এ ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন।

বাঁধন ছাড়াও অভিনয় করেছেন আফিয়া জাহিন জাইমা, কাজী সামি হাসান, আফিয়া তাবাসসুম বর্ন, ইয়াছির আল হক, সাবেরী আলমসহ অনেকে।

কানে প্রদর্শনের পর ভ্যারাইটি, হলিউড রিপোর্টার, এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া, স্ক্রিন ডেইলিসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের শিরোনামে এসেছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’; প্রকাশিত রিভিউয়ে নির্মাণ, গল্প, অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে।

সিনেমাটি দেখে বলিউডের নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যপ একে ভারতীয় উপ মহাদেশের ‘শক্তিশালী চলচ্চিত্র’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। নির্মাতা, অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীদের জানিয়েছেন শুভকামনা।

পোটোকল ও মেট্রো ভিডিওর ব্যানারে এ সিনেমার প্রযোজনা করেছেন সিঙ্গাপুরের প্রযোজক জেরেমী চুয়া, নির্বাহী প্রযোজক এহসানুল হক বাবু ও সহ-প্রযোজনা করেছেন রাজীব মহাজন, আদনান হাবিব, সাঈদুল হক খন্দকার।

এ চলচ্চিত্রের সিনেমাটোগ্রাফার তুহিন তমিজুল, প্রোডাকশন ডিজাইনার আলী আফজাল উজ্জল ও সাউন্ড ডিজাইনার শৈব তালুকদার। ছবিটি সহ-প্রযোজনা করেছে সেন্সমেকারস প্রডাকশন।