‘হোম কোয়ারেন্টিন’ না মানলে কঠোর ব্যবস্থা: আইইডিসিআর

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-16 20:05:02 BdST

bdnews24

বিদেশে থেকে আসা সবার ১৪ দিন কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করার পাশাপাশি কেউ তা না মানলে এবার কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, এ বিষয়ে কঠোর হতে জেলা পর্যায়ে গঠিত কমিটিকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নভেল করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারীর আকার নেওয়ার মধ্যে ১৫ মার্চ পর্যন্ত ৬ লাখ ৬ হাজার ১২ জন বাংলাদেশি দেশে এসেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় এসেছেন ৯ হাজার ৭৬৫ জন। দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়াও স্থল ও সমুদ্র বন্দর ব্যবহার করেও এসেছেন এসেছেন অনেকে। 

বিদেশ ফেরত সবেইকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল আইইডিসিআরের পক্ষ থেকে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকেও তা মেনে চলার অনুরোধ জানিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল।

তবে তা না মেনে দেশের বিভিন্ন এলাকায় থাকা বিদেশফেরতদের বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কিছু ঘটনা আইইডিসিআরের নজরে এসেছে বলে জানান অধ্যাপক ফ্লোরা।

এ ব্যাপারে বিদেশফেরতদের পরিবারের সদস্যদের সচেতনতাও জরুরি জানিয়ে তিনি বলেন, হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে না পারলে এ রোগের বিস্তার ঠেকানো কঠিন হয়ে পড়বে।

“আমরা আবারও অনুরোধ করছি, যারা বাইরে থেকে আসছি, তারা যেন পরিবার থেকে দূরত্ব বজায় রাখি। আমরা যেসব ব্যবস্থা নিচ্ছি তাতে সমাজ থেকে তাদের দূরে রাখতে পারব। যদি পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে দূরে রাখা না যায়, তাহলে এ রোগের সংক্রমণ ঠেকানো কঠিন হয়ে পড়বে। সেক্ষেত্রে আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে যেতে হবে।”

বাংলাদেশে সোমবার আরও তিনজনের মধ্যে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে, যারা এর আগে আক্রান্ত এক প্রবাসীর পরিবারের সদস্য।

আইইডিসিআরের পরিচালক বলেন, হোম কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি নিশ্চিত করতে প্রয়োজনে তারা আরও শক্ত ব্যবস্থা নেবেন।

“আমরা সহানুভূতিশীল হয়ে হোম কোয়ারেন্টিন করেছিলাম; সে বিষয়টা থেকে আমরা সরে এসে কিছুটা কঠোর হওয়ার দিকে যাচ্ছি। আমাদের জানা মতে কেউ যদি হোম কোয়ারেন্টিন মেনে না চলেন, সেক্ষেত্রে জরিমানা করার সুযোগ থাকছে।”

জরিমানার পরিমাণ কত হতে পারে জানতে চাইলে মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, সংক্রামক ব্যাধি আইন অনুযায়ী, সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার বিধান রয়েছে।

“কিন্তু এটা আমরা স্থানীয় প্রশাসনের হাতে ছেড়েছি। প্রশাসন স্থানীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেবে সেটা কত হবে, কী হবে।”

সংবাদ সম্মেলনে ডা. ফ্লোরা বলেন, কারও কোনো ‘অত্যাবশ্যকীয়’ প্রয়োজন থাকলে অনুমতি সাপেক্ষে বাইরে বের হওয়া যাবে।

“এর মধ্যে চিকিৎসা, কারও যদি পরীক্ষা থাকে, সেক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন এবং সিভিল সার্জন অফিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষে জানাতে হবে। তারা সেই অত্যাবশ্যকীয় ভ্রমণটি নিশ্চিত করবে।”

রোববার পর্যন্ত সারাদেশে ২ হাজার ৩১৪ জন বিদেশফেরত মানুষের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা জানিয়েছিল আইইডিসিআর। তবে এ বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তি ও আতঙ্ক ছড়াচ্ছে জানিয়ে সোমবার সংবাদ সম্মেলনে হালনাগাদ কোনো তথ্য জানানো হয়নি।