রেমডিসিভির হাতে আসবে দু-তিনদিনের মধ্যে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-16 17:09:31 BdST

bdnews24

বাংলাদেশে পরীক্ষামূলকভাবে তৈরি করোনাভাইরাসের উপসর্গ প্রশমনে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ রেমডিসিভির দুই-তিনদিনের মধ্যেই হাতে পাবেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

শনিবার সকালে রাজধানীর আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতাল হিসেবে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এতথ্য  জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “আপনারা জানেন আমেরিকাতে যে ওষুধটা তৈরি হয়েছে, সে ওষুধটি রেমডিসিভির.. সে ওষুধটি বাংলাদেশেও কয়েকটি কোম্পানি বানাচ্ছে। আমাদের হাতে চলে আসবে আগামী দুই তিন দিনের মধ্যে। সেটাও আমরা রোগীর সেবায় দিতে পারব।

“আমরা ভ্যাকসিনের উপরও কাজ করছি। বিদেশে যেখানে ভ্যাকসিন তৈরি হচ্ছে সেখানে আমাদের যোগাযোগ স্থাপন চলছে। যখনই ভ্যাকসিন তৈরি হবে, তখনই বাংলাদেশ যেন সঠিকভাবে তাড়াতাড়ি পেয়ে যায়।”

নিউমোনিয়ার মতো উপসর্গসহ নতুন করোনাভাইরাসে নিরাময়ে কার্যকর কোনো ওষুধ এখনো আবিষ্কার হয়নি। তবে উপসর্গ নিরাময়ে প্রচলিত কিছু ওষুধ ব্যবহার হচ্ছে বিভিন্ন দেশে। 

এগুলোর মধ্যে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন, ফ্যাভিপিরাভির ও রেমডেসিভির পরীক্ষামূলকভাবে তৈরি করতে স্কয়ার ফার্মা, এসকেএফ, বীকন, বেক্সিমকো, জিসকা ও ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস সরকারের অনুমতি পেয়েছে।

তবে ওষুধগুলো বাজারে বিক্রি করা যাবে না জানিয়ে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন, সেগুলো তারা সরকারের কাছে দেবে। যখন সরকারের প্রয়োজন হবে, তখন গাইডলাইন অনুসারে তা ব্যবহার হবে অথবা ট্রায়াল দেবে।

“ট্রায়ালের জন্য যেন ওষুধটা পাই, এই প্রস্তুতি হিসেবে আমরা তৈরি করতে বলেছি। কিন্তু বাজারে বিক্রি করার জন্য নয়, আমাদের পক্ষ থেকে সবাইকে চিঠি দেওয়া আছে এই ওষুধ বাজারে বিক্রি না করার জন্য।”

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে দেশে প্রথম মৃত্যুর পর দুই মাসের মাথায় মৃতের সংখ্যা তিনশ ছাড়িয়ে গেল, আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গিয়েছে প্রায় ২১ হাজারে।

এমন পরিস্থিতিতে সরকার লকডাউন শিথিল করে দিয়ে গার্মেন্টস, শপিংমল ও দোকানপাট খোলার অনুমতি দিয়ে বিস্তর সমালোচনার মুখে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আবারও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার উপর জোর দেন।