ফাইজার, মডার্নার টিকায় ধারণার চেয়ে বেশি তরুণের হৃদযন্ত্রে প্রদাহ: সিডিসি

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-11 13:41:35 BdST

bdnews24
যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় ইউএস সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) সদরদপ্তর। ছবি: রয়টার্স

যুক্তরাষ্ট্রে ফাইজার-বায়োএনটেক এবং মডার্নার কোভিড-১৯ টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর কম বয়সী তরুণদের মধ্যে হৃদযন্ত্রের প্রদাহ দেখা গেছে ধারণার চেয়ে বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছে।  

সিডিসির বরাতে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুটি কোম্পানির কোভিড টিকাই তৈরি করা হয়েছে এমআরএনএ ব্যবহার করে। সিডিসির নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ ব্যবস্থার তথ্য অনুযায়ী, তরুণ পুরুষদের একটি অংশের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর হৃদযন্ত্রে প্রদাহ দেখা দেয়।

ফাইজারের কোভিড-১৯ টিকার সঙ্গে তরুণদের হৃদযন্ত্রে প্রদাহের যোগসূত্র আছে- ইসরায়েলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এমন প্রতিবেদন প্রকাশের পর সিডিসি এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান শুরু করে।

যুক্তরাষ্ট্রের সিডিসি জানিয়েছে, তারা এখনও এ পরিস্থিতির ঝুঁকি মূল্যায়ন করছে এবং মায়োকার্ডিয়াক বা পেরিকার্ডিয়াকের সঙ্গে টিকার কোনো কার্যকারণ সম্পর্ক আছে কিনা সে বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছায়নি।

কয়েকজন রোগী এ কারণে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও, বেশিরভাগই তাদের উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

সিডিসি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ভ্যাকসিন অ্যাডভার্স ইভেন্ট রিপোর্টিং সিস্টেমে (ভার্স) অভিযোগকারী অর্ধেকের বেশি মানুষ ফাইজার-বায়োএনটেক বা মডার্নার টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর উপসর্গ তৈরি হওয়ার কথা বলেছেন। তাদের বয়স ১২ থেকে ২৪ বছরের মধ্যে। যুক্তরাষ্ট্রে টিকা প্রাপ্তদের মধ্যে এই বয়সশ্রেণির অংশগ্রহণ ৯ শতাংশেরও কম।

এই সমস্যার বড় অংশই টিকা নেওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে ঘটেছে জানিয়ে সিডিসির উপপরিচালক ড. টম শিমাবুকুরো বৃহস্পতিবার বলেন, “স্পষ্টতই এখানে একটি অসামঞ্জস্য দেখা যাচ্ছে।”

ভার্সের তথ্য অনুযায়ী, ১৬ থেকে ২৪ বছর বয়সী ২৮৩ জন দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর হৃদপিণ্ডে ব্যথা অনুভব করে। চিকিৎসকদের ধারণা ছিল, এ ধরনের উপসর্গ দেখা দিতে পারে ১০ থেকে ১০২ জনের মধ্যে। কিন্তু সেই তুলনায় অনেক বেশি মানুষের এমন উপসর্গ দেখা গেছে বলে জানিয়েছে সিডিসি।

ড. শিমাবুকুরো বলেন, কম বয়সীদের মধ্যে যারা হৃদপিণ্ডে ব্যথা অনুভব করেছে, তাদের প্রায় সবাই পুরুষ। ভার্সের তথ্যও বলছে, দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর ব্যাথা অনুভবকারীদের গড় বয়স ২৪ বছর এবং প্রায় ৮০ শতাংশই পুরুষ।

আরেকটি নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ ব্যবস্থা ভ্যাকসিন সেইফটি ডেটালিংকের (ভিএসডি) তথ্য তুলে ধরে ড. শিমাবুকুরো বলেন, সেখানকার তথ্যেও দেখা যাচ্ছে ১৬ থেকে ৩৯ বছর বয়সীদের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরে হৃদপিণ্ডে প্রদাহ সৃষ্টির ঘটনা প্রথম ডোজের তুলনায় বেড়েছে।

ফাইজার বলেছে, হৃদযন্ত্রে প্রদাহের বিষয়টি নিয়ে তারা সিডিসির মূল্যায়ন সমর্থন করে। সেইসঙ্গে তারা এটাও বলেছে, যে পরিমাণ টিকা দেওয়া হয়েছে, সে তুলনায় ব্যথা অনুভবকারীর সংখ্যা ‘খুবই কম’।

মডার্না জানিয়েছে, তারাও এখন পর্যন্ত তাদের টিকার সঙ্গে এ ধরনের ব্যথার সম্পর্ক খুঁজে পায়নি। জনস্বাস্থ্য ও নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কাজ করার কথা জানিয়েছে তারা।