পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

দেশে ষাটোর্ধ্ব প্রতি ১২ জনে একজন ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত: সমীক্ষা

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-01 01:02:56 BdST

bdnews24

বাংলাদেশে ৬০ বছর বা তার বেশি বয়সীদের মধ্যে প্রতি ১২ জনে একজন ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত বলে এক সমীক্ষায় উঠে এসেছে।

ডিনেমশিয়া এমন এক সিনড্রোম যেটি হলে মানুষের স্মৃতিশক্তি, চিন্তাভাবনা, আচরণ এবং প্রতিদিনের স্বাভাবিক কার্যক্রম সম্পাদনের ক্ষমতা কমে যায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেবে, পৃথিবীতে ৫ কোটি মানুষের ডিমেনশিয়া রয়েছে। এই জনগোষ্ঠীর ৬০ শতাংশই নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোয় বাস করেন।

২০১৯ সালে আইসিডিডিআর,বি এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স বাংলাদেশে সাতটি বিভাগে একটি সমীক্ষা চালায়।

শহর ও গ্রামাঞ্চলের ষাটোর্ধ্ব ২ হাজার ৭৯৬ জনের উপর চালানো এই সমীক্ষার ফল বুধবার এক ওয়েবিনারে তুলে ধরা হয়।

সমীক্ষার ফলাফলের বরাত দিয়ে আইসিডিডিআর,বি বলছে, প্রতি ১২ জনের মধ্যে একজনের ডিমেনশিয়া রয়েছে। পুরুষদের তুলনায় নারীদের ডিমেনশিয়ার প্রকোপ ২ দশমিক ৫ গুণ বেশি। রাজশাহীতে (১৫ শতাংশ) এবং রংপুরে (১২ শতাংশ) ডিমেনশিয়ার প্রকোপ বেশি।

সমীক্ষার ফলাফলের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, বয়স বাড়ার সঙ্গে ডিমেনশিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। ষাটোর্ধ্ব বয়স্ক ব্যক্তিদের মধ্যে যারা কখনও স্কুলে যায়নি এবং যাদের স্ত্রী বা স্বামী নেই সামগ্রিকভাবে ডিমেনশিয়ার প্রকোপ তাদের মধ্যে অন্যদের চেয়ে বেশি দেখা গেছে।

এই রোগে আক্রান্তদের মধ্যে ৫২ শতাংশের বেশি হাইপারটেনশন, ৫৪ শতাংশ হতাশা এবং ৮ শতাংশের ডায়াবেটিসসহ দীর্ঘস্থায়ী রোগ ছিল।

এই গবেষণা সম্পর্কে জাতীয় নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. কাজী দ্বীন মোহাম্মদ বলেন, মানুষের মধ্যে ডিমেনশিয়া সম্পর্কে জ্ঞানের অভাব রয়েছে। তাই খুব বিলম্বে এই রোগ নির্ণয় করা যায়।

“ডিমেনশিয়া নিয়ে আরও গবেষণা চালানো দরকার, যাতে আমরা ডিমেনশিয়া বৃদ্ধির কারণ সনাক্ত এবং এটির উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারি।”

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এনসিডিসির লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. মো. রোবেদ আমিন বলেন, নানা রোগে আক্রান্ত বয়স্ক ব্যক্তিরা কোভিড মহামারীতে সবচেয়ে বেশি ভুগছেন। “আমাদের কাছে প্রবীণদের জন্য উপযুক্ত স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সামগ্রিক পরিষেবা মডেল নেই। তাই, সরকারি-বেসরকারি এবং গবেষণা সংস্থাগুলো মিলে ঝুঁকিপূর্ণ এই ব্যক্তিদের জন্য একটি সম্মিলিত পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।”

আইসিডিডিআর,বির ইনিশিয়েটিভ ফর নন-কমিউনিকাবল ডিজিজ ইউনিটের প্রধান ড. আলিয়া নাহিদ গবেষণার ফলাফল উপস্থাপন করেন।

এতে বলা হয়, ২০২০ সালে বাংলাদেশে ডিমেনশিয়া রোগীর সংখ্যা ছিল ১১ লাখ। ২০২৫ সালে এই সংখ্যাটি বেড়ে দাঁড়াবে ১৩ লাখ ৭০ জনে।

ভার্চুয়াল ওয়েবিনারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম, আইসিডিডিআর,বির নির্বাহী পরিচালক ডা. তাহমিদ আহমেদও ছিলেন।