ENG
২৫ নভেম্বর ২০১৭, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

বিভূতিভূষণের চাঁদের পাহাড়

  • সুদীপ বিশ্বাস (১৬), গোপালগঞ্জ
    Published: 2017-05-18 13:50:50 BdST

bdnews24

এ সপ্তাহে বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের চাঁদের পাহাড় পড়লাম। এটা অনবদ্য এক কিশোর উপন্যাস। যার পাতায় পাতায় অ্যাডভেঞ্চার। একবার পড়ার পর মনে হয়েছে আরও কয়েকবার পড়তে হবে।

অজ পাড়া গাঁয়ের ছেলে শঙ্কর। সারা গ্রামে টইটই করে, পুকুরের জলে সাঁতার কেটে, গাছে চড়ে শৈশব কৈশোর পেরিয়ে একজন টগবগে যুবক।

ছোটবেলা থেকে অজানাকে জানার খুব শখ তার। আর এই ইচ্ছা পূরণ করতে বই পড়ে সময় কাটায়।

রেলেওয়ের চাকরি পাওয়ার সুবাদে আফ্রিকা যাওয়ার সুযোগ পায় শঙ্কর। ব্ল্যাক মাম্বা আর সিংহের দেশ আফ্রিকা! শঙ্করকে আর পায় কে? একে তো সে নাচুনি বুড়ি তার উপরে আবার ঢোলের বাড়ি। আফ্রিকায় গিয়ে শঙ্করের দুঃসাহসিক সত্তা জেগে ওঠে। সিংহের সাথে টেক্কা দেওয়ার মতো কাজও করে ও।

এরপর এক দুঃসাহসিক হীরক সন্ধানী অভিযাত্রী ডিয়াগো আলভারেজের সাথে দেখা হয় শঙ্করের। একে রামে রক্ষে নেই তারপর আবার সুগ্রীব দোসর অবস্থা। বৃদ্ধ আলভারেজ তার সারা জীবন কাটিয়েছেন আফ্রিকার জঙ্গলে জঙ্গলে হিরের সন্ধানে। শঙ্কর কে আর পায় কে? রেলের চাকরি ছেড়ে দিয়ে রিখটাসভেল্ড পর্বতমালার দিকে চাঁদের পাহাড়ে।

ঢেঁকি স্বর্গে গেলেও ধান ভানে। চাঁদের পাহাড় পড়বেন আর বিভূতিবাবুর স্বভাবসিদ্ধ নৈসর্গিক বর্ননা থাকবে না তা কি হয়?  আফ্রিকার বিদঘুটে জঙ্গলও তার হাতের কলমে সোনার বন হয়ে উঠেছে।

শঙ্কর আর ডিয়াগো আলভারেজ চাঁদের পাহাড়ের হিরার খনির উদ্দেশ্যে দীর্ঘদিন জঙ্গলে ঘুরতে থাকে ও নানান বিচিত্র অভিজ্ঞতা অর্জন করতে থাকে। তারা দুজনে মিলে আবিষ্কার করে এক ভয়ঙ্কর আগ্নেয়গিরি। 

হঠাৎ এক ভয়ঙ্কর প্রাণির মুখোমুখি হয় শঙ্কর আর আলভারেজ। বুনিপের হাতে মৃত্যু হয় অসম সাহসী ডিয়াগো আলভারেজ এর। আফ্রিকার জঙ্গলে আনাড়ি শঙ্কর একা হয়ে পড়ে। সম্মুখীন হয় নানা ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার। অভিজ্ঞতাটা আর লিখি না। পড়লেই বোঝা যাবে কি অনবদ্য কিশোর উপন্যাস চাঁদের পাহাড়।