পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ভালো আছি: আবুল হায়াত

  • সাইমুম সাদ, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-04-05 11:40:24 BdST

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রবীণ অভিনেতা, নির্মাতা আবুল হায়াতের শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটেছে।

রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালের ‍করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) চারদিন ধরে চিকিৎসা শেষে রোববার তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে জানান ৭৭ বছর বয়সী এ অভিনেতা।

সোমবার সকালে আবুল হায়াত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আল্লাহর রহমতে আমি এখন ভালো আছি। প্যারামিটারগুলো ডেভলপ করে গেছে, বেটার আছি। সিসিইউ থেকে কেবিনে এসেছি।”

করোনাভাইরাস শনাক্তের পর বুধবার রাতে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হার্টের পূর্ব জটিলতা থাকায় ও বয়সের কারণে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বনের জন্য তাকে সিসিইউতে রাখা হয়েছিল।

এখনও তার অক্সিজেন প্রয়োজন হয়নি বলে জানান আবুল হায়াত। হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্সদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার তার করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার কথা রয়েছে; রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে, তিনি কবে নাগাদ হাসপাতাল ছেড়ে বাসায় ফিরতে পারবেন।

আপাতত কেবিনে বই পড়ে সময় কাটছে আবুল হায়াতের; যিনি অভিনয়ের পাশাপাশি লেখালেখির সঙ্গেও ‍যুক্ত আছেন প্রায় তিন দশক ধরে। ‘এসো নিপোবনে’, ‘অচেনা তারা’, ‘মিতুর গল্প’সহ বেশ কয়েকটি বই প্রকাশ হয়েছে তার।

“হাতের কাছে বই রাখি। যখন ভালো লাগে না তখন বই পড়ি। এতক্ষণ জানালা দিয়ে বারিধারা লেকের ছবি তুললাম।”

দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে অভিনয় থেকে নিজেকে অনেকটা গুটিয়ে নিয়েছিলেন সময়ের ব্যস্ত এ অভিনেতা; গত এক বছরে সর্বোচ্চ তিনটি টিভি নাটক ও ‘স্ফূলিঙ্গ’ চলচ্চিত্রের দৃশ্যধারণে অংশ নিয়েছেন তিনি।

“বেশিরভাগ সময় আমি বাসায় ছিলাম। প্রকোপ কমতে থাকায় যখন মনে হলো মেবি স্বাস্থ্য সচেতন থেকে দুয়েকটা কাজ করতে পারব তখন করেছি। কিন্তু তখন কিছুই (করোনাভাইরাস) হয়নি। বাড়িতে বসেই হঠাৎ করে আক্রান্ত হলাম।”

সম্প্রতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সোমবার থেকে সাত দিন গণপরিবহন চলাচল বন্ধের পাশাপাশি বাজার-মার্কেট, হোটেল-রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার।

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান জানিয়ে আবুল হায়াত বলেন, “এটা যেভাবে ছড়াচ্ছে আর আমরা যেভাবে হেসে-খেলে রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছি, পাত্তা দিচ্ছি না এটা খুবই দুঃখজনক।”

১৯৬৯ সাল থেকে টিভি নাটকে অভিনয় করছেন তিনি; দীর্ঘ ক্যারিয়ারে নাটকের পাশাপাশি ‘অজ্ঞাতনামা’. ‘আগুনের পরশমণি’, ‘জয়যাত্রা’, ‘গহীনে শব্দ’সহ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

‘দারুচিনি দ্বীপ’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ২০০৭ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন আবুল হায়াত।