২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

নতুন বছর নতুন বই

  • আবু আফজাল সালেহ, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-01 13:55:54 BdST

bdnews24

নতুন বছর নতুন বই

 

একই সাথে পাচ্ছি আমরা

নিউ ইয়ার ও নিউ বুক

মনের সুখে ভাসিয়ে দিলাম

দুঃখ ছেড়ে সুখ।

নতুন বইয়ের নতুন ঘ্রাণে

পড়বো মোরা সুখে

ধনী-গরীব একই সাথে

থাকবো সুখ বা দুঃখে।

দুঃখটাকে মুছে দিয়ে

ঢেকে দিয়ে কালো

ভালো কিছু পালন করি

জাগিয়ে তুলে আলো।

                                            

                                             হ্যাপি নিউ ইয়ার

 

রাত বারোটায় হঠাৎ দেখি

একটি ম্যাসেজ দিয়া’র

তিনটি শব্দে লেখা আছে

হ্যাপি নিউ ইয়ার।

তার নিচের লেখাগুলো

জাগায় মনে আশা

পুরনো সব মুছে দিয়ে

নতুন করো বাসা।

দুঃখ-গ্লানি ভুলে গিয়ে

আঁকো নতুন ছবি

শক্তি সাহস বুকে নিয়ে

তুলে দাও রবি।

দুঃখটাকে ছেড়ে দিয়ে

রাখো সুখের স্মৃতি

মানবতা জাগিয়ে তুলে

মেলে ধরো প্রীতি।

 

                                               নববর্ষ পালন

 

এসো আমরা সবাই মিলে

মাতি নববর্ষে

কালো-সাদা ধনী-গরীব

মিলেমিশে হর্ষে

পুরনো সব সুখের স্মৃতি

বুকে ধরে রাখি

দূরে ঠেলে হিংসা-বিদ্বেষ

গ্লানি-দুঃখ-বাকি।

এসব যদি মানতে পারি

তবেই হবে সার্থক

এসব ছাড়া নববর্ষ

পালন হয় নিরর্থক।

 

ফড়িং আর প্রজাপতি

 

তিড়িং বিড়িং রঙিন ডানায়

ফড়িং নাচে বনে

উড়ে উড়ে খেলা করে

নীল পরিদের সনে।

একটা ফড়িং উড়ে বসে

গাঁদা ফুলের গায়ে

তার সাথে এক প্রজাপতি

বসে এসে বায়ে।

 

ফড়িং সাথে প্রজাপতি

ওড়ে আর বসে দূর

রঙিন ডানায় ফিরে আবার

সুর তোলে সুমধুর।

 

তা ধিনা ধিন যখন আসে

ছোট্ট ছাগল কানা

ফড়িঙের সাথে মেলে দিলো

প্রজাপতিও ডানা।

 

                                                অপরূপ দৃশ্য

 

নিচে নদী

উঁচু আকাশ

মাঝে কালো

ফিঙে,

নদীর ধারে

সবুজ মাচায়

বাতাস নাচায়

ঝিঙে।

 

ঝিঙে ফিঙে

আকাশ বাতাস

নীলে কালো

শতরূপ,

সবুজ মাচায়

টুনি ঝিঙে

দোলে নাচে

অপরূপ!

 

এসকি মেসকি

 

এসকি মেসকি

চারু পারু চাস কি?

স্কুল ছুটিতে খোলা মাঠে

আর হারুদের বাগানে

খেলা চলে পুরোদমে

মুন্নার চোখ থাকে পাঠে।

 

আজ তো নেই পড়া

কেটে যাব মুখে ছড়া

এসকি মেসকি এক্কা-দোক্কা

তুই নাকি ভালো না

ইয়া বড়ো বোক্কা।

 

শুধু শুধু পড়া পড়া

ভালো না ভালো না

পড়ার সাথে খেলাটা

ভালো করে মনটা।

 

ওপাড়ার মুন্না

এ কথা বোঝে না!

 

 

কিডস পাতায় বড়দের সঙ্গে শিশু-কিশোররাও লিখতে পারো। নিজের লেখা ছড়া-কবিতা, ছোটগল্প, ভ্রমণকাহিনী, মজার অভিজ্ঞতা, আঁকা ছবি, সম্প্রতি পড়া কোনো বই, বিজ্ঞান, চলচ্চিত্র, খেলাধুলা ও নিজ স্কুল-কলেজের সাংস্কৃতিক খবর যতো ইচ্ছে পাঠাও। ঠিকানা kidz@bdnews24.com। সঙ্গে নিজের নাম-ঠিকানা ও ছবি দিতে ভুলো না!


ট্যাগ:  ছড়ায় বর্ণমালায়