পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

চুল কাটার আগে

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক,, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2015-11-17 15:53:22 BdST

bdnews24

শুধু স্টাইল নয়, নিজের পছন্দ, ধরন, জীবনযাপন সম্পর্কেও জানানো দরকার।

লাইফস্টাইলবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে চুল কাটানোর আগে স্টাইলিস্টের সঙ্গে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে কথা বলার বিষয়ে উল্লেখ করা হয়।

জীবনযাপন সম্পর্কে বলুন

‘হেয়ার স্টাইল’ সাজসজ্জা এবং স্টাইলের অন্যতম একটি অংশ। আর নতুনভাবে চুল কাটলে তার প্রভাব পরে অন্যান্য ক্ষেত্রে। যেমন: পোশাক, মেইকআপ ইত্যাদি। তাছাড়া বাইরে চলাফেরার বিষয়গুলোও উল্লেখ করা জরুরি।

যেমন যারা বাস বা রিক্সায় চলাফেরা করেন তাদের জন্য সবসময় চুল খোলা রাখা সম্ভব নয় এবং উচিতও নয়। এতে চুলের ক্ষতি হয় বেশি। আর কিছু কিছু ‘কাট’ আছে যা খোলা রাখলেই বেশি ভালো লাগে। তাই এ বিষয়গুলো নিয়ে স্টাইলিস্টের সঙ্গে আলাপ করে নিতে হবে।

চুল ছোট করবো না, তবে নতুন স্টাইল চাই!- ভিত্তিহীন চাহিদা

অনেকেই চুল কাটানোর আগে চুলের দৈর্ঘ্য নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভোগেন। নতুন স্টাইলও চান আবার চুল ছোটও করতে চান না। এটি পুরোপুরি ভিত্তিহীন আবদার। চুল কাটা ছাড়া তা নতুন ভাবে স্টাইল করা কোনো স্টাইলিস্টের পক্ষেই সম্ভব নয়। তাই নতুন স্টাইল পেতে হলে চুল কাটতেই হবে।

স্টাইলিস্টের কথা শুনুন

চুল কাটানোর আগে অবশ্যই স্টাইলিস্টের সঙ্গে কথা বলতে হবে, পাশাপাশি স্টাইলিস্টের কথাও শুনতে হবে। স্টাইলিস্ট অনেক সময়ই মুখের ধরন বুঝে কোন ছাঁট মানাবে তার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। আর চুলের ছাঁট নিয়ে অবশ্যই স্টাইলিস্ট বেশি ভালো জানবেন। আর তাই তার মতামত শুনলে লাভই বেশি।

ধরন বুঝে ছাঁট বাছাই

চুল কোঁকড়া নাকি সোজা অথবা মুখ লম্বাটে বা গোল এই বিষয়গুলো বুঝে তবেই চুলের ছাঁট বাছাই করতে হবে।

নিশ্চিত হয়ে তবেই সিদ্ধান্ত নিন

চুল কাটানোর সময় স্টাইলিস্ট ভিন্ন স্টাইলের পরামর্শ দিতেই পারেন। তবে সেটি যদি ভালো না লাগে বা তা নিয়ে কোনো ধরনের অনিশ্চয়তা কাজ করে তবে সহজেই মানা করা যেতেই পারে। এর বদলে নিজের মতামত জানান। প্রথমে আশঙ্কায় ভুগে পরে আফসোস করার কোনো মানেই হয় না।