পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ওজন কমাতে মস্তিষ্কের অনুশীলন


  • Published: 2015-12-26 15:53:15 BdST

bdnews24

বাড়তি মেদ কমানোর আগে  আপনার মস্তিষ্ককে শেখাতে হবে কিছু বিষয়।

যে কোনো খাবারের দোকানে গেলেই দেখবেন লোভনীয়, স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর খাবারগুলোর ছবি বড় বড় করে দেওয়া আছে। এটা আপনাকে খাবারের প্রতি আকৃষ্ট করার একটা পরোক্ষ কৌশল।

খাবারের রং, প্যাকেটের নকশা, দোকানের অবস্থান ইত্যাদি খাওয়ার প্রতি ভালোবাসা বাড়িয়ে ফেলতে পারে অনেক গুণে। এসব কৌশল থেকে বাঁচতে কী করবেন তাই জানিয়েছেন ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ক্যালিফোর্নিয়ার ক্লিনিকাল মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. লার্স পার্নার।

একটি লাইফস্টাইল ম্যাগাজিনে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, এই নিয়মগুলো মেনে চলতে পারলে আপনি ওজন কমানোর পথে অর্ধেক এগিয়ে যাবেন।

বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে খাবার খাওয়ার আগে একটু ভাবুন, আসলেই খাবারগুলো স্বাস্থসম্মত কিনা। আবার অনেক বিজ্ঞাপন আছে যা টিভি পর্দায় মুহূর্তের জন্য দেখানো হয়, যা অবচেতন মনে প্রভাব ফেলে। যাকে বলে সাবলিমিনল অ্যাডভার্টাইজিং।

এধরনের বিজ্ঞাপন প্রথম দেখায় যায় ১৯৫৭ সালে। সেই সময়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষ চলচ্চিত্র দেখতে গিয়ে বেশি খাবার ও পানীয় কিনছে। কারণ চলচ্চিত্র দেখানোর মাঝে হঠাৎ একটি কোমল পানীয়র বোতলের ছবি দেখিয়ে বলছে, ‘পিপাসা লাগলে পান করুন’ অথবা পপকর্নের ছবি দেখিয়ে বলছে ‘খিদা লাগলে পপকর্ন খান’।

এই ধরনের বিজ্ঞাপন মাত্র পাঁচ সেকেন্ড প্রদর্শন করলেও আপনার মস্তিষ্কে দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব ফেলতে পারে। তখন নিজের অজান্তেই এই ধরনের খাবার কিনতে থাকবেন।

এসব প্রলোভন থেকে বাঁচতে নিচের পন্থাগুলো কাজে লাগাতে পারেন। 

স্রোতের বিপরীতে চলুন: রেস্তোরাঁয় আপনার সঙ্গীরা যখন উচ্চ চর্বিযুক্ত মচমচে, সুস্বাদু খাবার অর্ডার দেবে তখন আপনার মস্তিষ্ককে প্রশিক্ষণ দিন সালাদের কথা ভাবতে। ভেবে নিন সালাদটাই খুব মজাদার ও সুস্বাদু। ভুলেও উচ্চ চর্বিযুক্ত খাবারের কথা মাথায় আনবেন না। অন্যরা যাই ভাবুক যাই বলুক আপনি মন শক্ত রেখে সালাদ অর্ডার দিন এবং সেটা সবার সঙ্গে মজা করে খেয়ে নিন।

পরিমাণ অবশ্যই প্রভাব ফেলে: সাধারণত খাবারের প্যাকেটে লেখা থাকে প্রতি টুকরা খাবারে কতটা ক্যালোরি থাকে। এই ক্যালোরির পরিমাণ দেখেই খুশি হয়ে যাবেন না।

ডা. লার্স পার্নার বলেন, অনেকেই এই এক টুকরা খাবারের ক্যালোরি হিসেব করেই নিশ্চিন্ত মনে খেয়ে ফেলেন। আসলে জানতে হবে প্যাকেটে মোট কত টুকরা খাবার ছিল। এরপর হিসাব করে বের করতে হবে আসলেই আপনি কত টুকরা খাবার খেয়েছেন।

প্যাকেটের ছোট লেখাগুলো পড়ুন: প্যাকেটের খাবারে ক্যালোরির মান খুব ছোট করে এক কোণায় লেখা থাকে। অনেক সময়ই আপনি খুঁজতে খুঁজতে বিরক্ত হয়ে, শেষে না পড়েই খেয়ে ফেলেন। এভাবে খেলেন তো ফাঁদে পা দিলেন। তাই খাবারের প্যাকেটে লেখা যত ছোটই হোক না কেনো সেটাকে খুঁজে বের করে পড়ে তারপর কিনতে হবে।

বিস্তারিত ব্যাখ্যা বিবেচনা করুন: বিক্রেতারা তাদের পণ্য বিক্রি করার জন্য আপনার মস্তিষ্কের সঙ্গে এক ধরণের খেলা খেলে। তারা তথ্যটা এমনভাবে আপনার সামনে রাখে যেন আপনি বিভ্রান্ত হন।

প্রাতিষ্ঠানিক গবেষণার ভিত্তিতে ড. লার্স পার্নার জানান, অধিকাংশ মাংস বিক্রেতা তাদের পণ্যের উপর লিখে রাখে ৮০% চর্বিহীন। তিনি পরামর্শ দিয়েছেন, এ ধরণের তথ্য দেখেই খুশি মনে মাংস কিনতে যাবেন না। একটু সময় নিয়ে ভাবলেই বুঝতে পারবেন এতে ২০% চর্বি রয়েছে। ফলে এটা আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে অবশ্যই ক্ষতিকর।