২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

ওজন কমাতে মজার পানীয়

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক,, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2017-10-22 15:39:19 BdST

‘ওজন কমানোর খাবার’- বিষয়টাই হতাশাজনক। ওজন কমানোর জন্য পছন্দের অনেক খাবারই খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিতে হয়। তবে ব্যতিক্রমও আছে।

খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে কয়েকটি স্মুদি সম্পর্কে জানা যায়। যা ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং খেতেও বেশ মজা। 

স্ট্রবেরি, গাজর ও বিটরুটের স্মুদি

ওজন কমাতে চাইলে খাবারে বিটরুট যোগ করুন। এটা শক্তি বাড়ায়। ফলে দীর্ঘক্ষণ শরীরচর্চা চালিয়ে যেতে সাহায্য করে। এতে আছে দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় আঁশ যা ওজন কমাতে সহায়ক।

গাজরে খুব অল্প পরিমাণে ক্যালরি ও উচ্চ পরিমাণে আঁশ থাকে। স্ট্রবেরির ‘অ্যান্থোসায়ানিনস’ এবং ‘অ্যালাজিক অ্যাসিড’ প্রদাহ কমায়, ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং হরমোনের কার্যকারিতা বাড়ায়।

এই স্মুদি খেতে বেশ মজাদার এবং এটা ওজন কমাতে আশানুরূপ কাজও করে থাকে।

আদা-লেবুর শরবত

আদা উপকারিতা প্রায় সবারই জানা। বিশেষ করে এর অ্যান্টি-ইনফ্লামাটরি উপাদান হজম কাজে সাহায্য করে। আর ‘থার্মোজেনিক’ বা তাপ উৎপাদন করার ক্ষমতার জন্য এটা বিপাকের পরিমাণ বাড়ায় এবং চর্বি কমিয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে। 

অন্যদিকে, সুস্বাস্থ্যের জন্য লেবু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এর ভিটামিন সি, যা একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীর থেকে বর্জ্যপদার্থ অপসারণ করতে সাহায্য করে। এছাড়া লেবু শরীরে পানি ধারণ কমাতে ও শরীরের বিষাক্ত পদার্থ বের করে পেটের ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে।  

আপেল ও ক্যাপ্সিকামের স্মুদি

ওজন কমাতে চাইলে খাদ্য তালিকায় অবশ্যই ক্যাপ্সিকাম রাখা জরুরি। এর উজ্জ্বল রং বিশেষ করে লাল রংয়ে ভালো পরিমাণে ‘ক্যাপসাইসিন’ থাকে যা শরীরের তাপমাত্রা বাড়ায় এবং এর বীজ বিপাক বৃদ্ধি করে, এভাবে এটা শরীরের ক্যালরি খরচ করতে সাহায্য করে।  

আপেলে চর্বি ও সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকে। আর আছে উচ্চমানের খাদ্যআঁশ। যা ওজন কমাতে সহায়ক। এছাড়া আপেল ভিটামিন ও খনিজ উপাদান সমৃদ্ধ।

আপেল ও ক্যাপ্সিকামের স্মুদি কেবল ওজন কমাতে নয় বরং স্বাস্থ্য রক্ষাতেও সাহায্য করে।

শসা ও আনারসের স্মুদি

আনারসের আঁশ ও জলীয় উপাদান কেবল ওজন কমাতে সাহায্য করে না বরং এর অ্যাসিড উপাদান অনেকক্ষণ পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। খিদার অনুভূতি এবং খাদ্যের চাহিদাও কমায়।

শসায় জলীয় উপাদান বেশি এবং এতে ক্যালরির পরিমাণ কম, এটা স্বাদ যোগ করতে সাহায্য করে।

পানীয়র মাধ্যমে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে এটা অন্যতম মজাদার খাবার।

ছবি: রয়টার্স ও নিজস্ব।

আরও পড়ুন

ওজন কমানোর কৌশল  

ওজন কমাতে সহায়ক খাবার  

ওজন কমান সহজে  

ওজন কমানোর প্রাকৃতিক পন্থা