পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ধরন অনুযায়ী চুলের ছাঁট

  • লাইফস্টাইলডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-02-05 15:24:44 BdST

bdnews24

কেউই প্রথম অবস্থায় নিজের চুলের ছাঁট পছন্দ করে না। তার মানে এই নয়, আপনি কখনই চুল কাটিয়ে খুশি নন। তবে শুরুতেই চুলের কাটের প্রতি শতভাগ ভালোলাগা কাজ করে এটা বেশ দুর্লভ।

সাজসজ্জাবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এই সমস্যার মূল কারণ হিসেবে জানা যায় যে, আমরা নিজেদের চুলের ধরন না বুঝেই চুল কেটে থাকি। এই প্রতিবেদনে চুলের ধরন ভেদে মানানসই চুলের কাট নির্বাচন সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হল।

ঘন চুল: এই ধরনের চুলে স্টাইল করা সবচেয়ে সহজ। এমনকি এটা কখনই আপনার অমতে গিয়ে নিজের মতো আচরণ করবে না। চাইলে সাধারণ বব অর্থাৎ সামনে লম্বা রেখে পিছনে ছোট করে কাটতে পারেন। যাদের মুখের গড়ন ডিম্বাকার অথবা হৃদয়আকৃতির তাদের সঙ্গে এই চুলের কাট বেশি মানানসই।

চাইলে লম্বা লেয়ারের পরিবর্তে গোলাকার ভাবে কেটে রাখতে পারেন। এতে চুলের বাড়তি ঘনত্ব বোঝা যাবে। 

পাতলা চুল: গোলাকার চুলের কাট এই ধরনের চুলের সঙ্গে বেশি মানানসই। এতে চুল প্রাকৃতিকভাবেই ঘন দেখায়। চুলের নিচের দিকে পাতলাভাব দূর করতে ছোট করে কাটা ভালো। কেননা পাতলা চুল বড় হলে নিচের দিকটা দেখতে অগোছালো দেখায়। অসমভাবে জনপ্রিয় ‘লব কাট’ কাটা যেতে পারে। এতে আপনাকে দেখতে বেশ কোমল ও চটপটে লাগবে।

পাতলা লম্বা চুলে ঘনভাব আনতে ‘লেয়ার কাট’ সবচেয়ে মানানসই। যদিও এটা সুন্দর চুলের মতো দেখাবে না। তারপরও এটাই সবচেয়ে ভালো উপায়। লম্বা চুল গোলাকারভাবে কাটা হলে তা দেখতে ঘন লাগে এবং সামনের অংশ অসমানভাবে অর্থাৎ খোঁচাখোঁচা ভাবে কেটে নিতে পারেন।

কোঁকড়া চুল: নিয়ন্ত্রণে রাখতে সবচেয়ে বেশি কষ্টকর ও যত্নের প্রয়োজন হয়। তাই বলে তো আর হাল ছেড়ে দেওয়া যাবে না। কোঁকড়া চুলের অধিকারীদের বন্ধু হল লেয়ার কাট। মুখের সামনের অংশের চারপাশে ধিরে ধিরে চুলের স্তর কাটা অথবা সামনে লম্বা লেয়ার কেটে পেছনে কৌণিক লব কাটা এবং পেছনের দিকে ছোট করে কেটে নিতে পারেন।

আপনার চুল যদি অনেক বেশি কোঁকড়া হয় তাহলে চুলে লম্বা লেয়ার কাটুন এটা আপনার চুল নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করবে।

ঢেউ খেলানো চুল: এই ধরনের চুল দিয়েই সবচেয়ে ভালো স্টাইল করা যায় যদি তার ঠিক মতো পরিচর্যা করা হয়। প্রাণবন্ত ভাব আনতে চুলে অসমান কাট দিতে পারেন। অথবা চাইলে কাঁধের নিচ পর্যন্ত লম্বা ঢেউ খেলানো চুল রাখতে পারেন। এটা কেবল ঐতিহ্যবাহী না বরং এতে খুব সহজেই স্টাইল করা যায়। কেবল চুল পেঁচিয়ে কাটা দিয়ে নিন এবং এরপর তাতে সামদ্রিক লবণের স্প্রে ছড়িয়ে নিন এতেই আপনি বাইরে যাওয়ার জন্য তৈরি।

সোজা চুল: আপনার সোজা চুলের জন্য যত মানুষই হিংসা করুক না কেনো, কেবল আপনিই বলতে পারবেন যখন চুলের অবস্থা ভালো থাকে না তখন কী পরিমাণ যন্ত্রণা পোহাতে হয়। এই সমস্যা এড়াতে চুলের পেছনের দিকে গোলাকার ও সামনে ব্যাঙ কাট দিন। এতে চুলে আসবে বাড়তি ঘন ভাব। যদি চুল ছোট রাখতে চান তাহলে কাঁধ পর্যন্ত লম্বা ‘বব কাট’ অথবা ‘পিক্সি কাট’ বেছে নিতে পারেন।

প্রতীকী ছবির মডেল: নিশা। ছবি: মরিয়ম মনি।

আরও পড়ুন

কীভাবে বুঝবেন চুল কাটার সময় হয়েছে  

চুল কাটার আগে  

চুলের সমস্যা! সমাধান হাতের কাছে  

পাতলা চুল নিয়ন্ত্রণে ৫ উপায়