পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

বাসি-ভাত থেকে বিষক্রিয়া

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-10-09 15:39:03 BdST

bdnews24

বেঁচে যাওয়া ভাত পরে গরম করে খাওয়ার আগে সাবধান হন।

খাবার বারবার গরম করা ঝুঁকিপূর্ণ। অন্যান্য খাবার হিসেব করে রান্না করা গেলেও ভাত হিসেব করে রান্না করা সবসময় সম্ভব হয় না। আর এখানেই প্রশ্ন আসে, ভাত পুনরায় গরম করে খাওয়াও কি ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে? যদি হয় তবে তার কারণ কি শুধুই আবার গরম করার পদ্ধতিটি, নাকি অন্য কিছু?

ভাত পুনরায় গরম করলে যা হয়

পুষ্টিবিজ্ঞানের তথ্যানুসারে স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়- চালের কোষ তৈরি করতে পারে ‘ব্যাসিলাস সেরেয়াস’ নামক ব্যাকটেরিয়া, যা তৈরি করে বিষাক্ত উপাদান। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ব্যাকটেরিয়া চাল সিদ্ধ করে ভাত তৈরির পরও বেঁচে থাকতে পারে।

এই ভাত কক্ষ বা সাধারণ তাপমাত্রায় রেখে দিলে ব্যাকটেরিয়া বংশ বিস্তার করে, ফলাফল হয় খাদ্যে বিষক্রিয়া। আবার ভাত পাঁচ থেকে ৫৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় পুনরায় গরম করা হলে এই ব্যাকটেরিয়া সক্রিয় হয়ে ওঠে বলে ধারণা করা হয়।

সমাধান

ভারতের ‘ন্যাশনাল হেল্থ সার্ভিস’য়ের মতে, রান্না করা ভাত এক ঘণ্টার বেশি সময় কক্ষ তাপমাত্রায় রাখা উচিত নয়। রাখতে হবে ফ্রিজে, কাঁচ কিংবা ধাতব পাত্রে। তাপমাত্রা হতে হবে পাঁচ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। আর প্রয়োজন অনুযায়ী গরম করে নিতে হবে।

কতবার গরম করা নিরাপদ?

টাটকা খাবার খাওয়া সবসময়ই আদর্শ। তবে খাবারের অপচয় রোধ করতে ভাত সর্বোচ্চ একবার গরম করাই শ্রেয়। এর বেশি গরম করা হলে ভাত নষ্ট হয়ে শরীরের রোগ প্র্রতিরোধ ক্ষমতার উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে।

পুনরায় গরম করার পদ্ধতি

বাসি-ভাত ফ্রিজ থেকে বের করার সঙ্গে সঙ্গেই গরম করতে হবে। পাশাপাশি ওই ভাত থেকে গরম বাষ্প উঠছে এমন অবস্থাতেই খেয়ে ফেলতে হবে। আর গরম করার সময় ভাত নাড়তে থাকতে হবে যাতে সবখানে তাপ সমানভাবে পৌঁছায়।

সংরক্ষণে সাবধানতা

রান্নার পর ভাত দ্রুত ঠাণ্ডা করতে পাত্র পরিবর্তন করতে হবে। এছাড়াও কয়েকটি ছোট অংশে ভাত ভাগ করে দেওয়ার মাধ্যমেও দ্রুত ঠাণ্ডা করা যায়। দ্রুত ঠাণ্ডা করলে ব্যাকটেরিয়া সক্রিয় হওয়া সম্ভাবনা কমে।

আরও পড়ুন

ভাত খান নির্ভয়ে  

ভাত খান নির্ভয়ে  

সঠিক সময়ে খেলে বাড়বে না ওজন ভাতে  

ভাত ভালো  

ঝরঝরে ভাত রান্নার কৌশল