কর্মক্ষেত্রে ঠাণ্ডা-জ্বরে থেকে বাঁচতে

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-23 13:58:26 BdST

bdnews24

জ্বর-কাশিতে আক্রান্ত সহকর্মীর কাছ থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখার উপায়।

জীবিকার তাড়নায় সাধারণ ঠাণ্ডা-জ্বর থেকে অনেক সময় কর্মক্ষেত্র থেকে ছুটি নেওয়া হয় না। ফলাফল অন্যান্য কর্মীদের মাঝে ‘ফ্লু’ ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়া।

এক্ষেত্রে নিজে অসুস্থ হতে না চাইলে সাবধান থাকতেই হবে। আর কীভাবে সাবধানে থাকবেন সেই পদ্ধতি জানানো হল স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে।

* অসুস্থ সহকর্মীর ব্যবহার্য জিনিস ব্যবহারে সতর্ক থাকতে হবে। কর্মক্ষেত্রের বৈদ্যুতিক বোর্ডের সুইচ, দরজার হাতল, কম্পিউটারের কি-বোর্ড, মাউস ইত্যাদি ব্যবহারের আগে তা জীবাণু মুক্ত কাপড় দিতে মুছে নিতে পারেন। আপনার নিত্য ব্যবহার্য জিনিসপত্র অন্যদের, বিশেষ করে রোগাক্রান্ত ব্যক্তিকে ব্যবহার করতে দেওয়া থেকে ‍বিরত থাকতে হবে।

* কর্মক্ষেত্রে পানি বা চা-কফি পানের জন্য নিজস্ব মগ রাখাটা জরুরি। কর্মক্ষেত্রের সাধারণ গ্লাস, মগ, কাপ সবাই কমবেশি ব্যবহার করেন। তাই চারপাশে যখন মৌসুমী রোগের ছড়াছড়ি তখন এই খুঁটিনাটি বিষয়গুলোর প্রতিও নজর দিতে হবে। রোগের ঝুঁকি না থাকলেও ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা রক্ষার্থেও ব্যক্তিগত মগ ব্যবহার করা জরুরি।

* অপরিষ্কার হাত দিয়ে মুখমণ্ডল স্পর্শ করা কিংবা দাঁত দিয়ে নখ কাটা মৌসুমী রোগবালাইয়ের সময় অত্যন্ত ক্ষতিকর। মুখমণ্ডল, বিশেষ করে চোখ ও মুখের মাধ্যমে শরীরে সহজে জীবাণু প্রবেশ করতে পারে। আর নিজের হাত থেকেই এই পথ দিয়ে জীবাণু প্রবেশ করার সম্ভাবনা সবচাইতে বেশি। তাই হয় মুখমণ্ডল স্পর্শ করা বন্ধ করতে হবে। নয়তো ঘন ঘন হাত পরিষ্কার করতে হবে।

* চিকিৎসকরা বারবার হাত ধোয়ার পরামর্শ দেন। সেটার যথাযথ কারণও আছে। চিন্তা করে দেখুন সারাদিন হাত দিয়ে কতকিছু স্পর্শ করা হয়- দরজার হাতল, শৌচাগারের পাত্র কিংবা ফ্লাশের সুইচ, গণহারে ব্যবহৃত চেয়াল-টেবিল, কি-বোর্ড, মাউস ইত্যাদি আরও কত কি! সবখানেই জীবাণুর ছড়াছড়ি। তাই ঘন ঘন হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়তে হবে, বা হাতের কাছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার থাকতে হবে।

* যেকোনো রোগের জীবাণু প্রতিরোধ করতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ। আর এই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অক্ষুন্ন রাখতে পর্যাপ্ত ঘুম অনিবার্য। পর্যাপ্ত ঘুম হলে কর্মশক্তিরও কমতি হবে না।

* রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে অক্ষুন্ন রাখার আরেকটি উপায় হল নিয়মিত শরীরচর্চা করা। তবে ব্যায়ামাগারে ব্যায়াম করলে সবার ব্যবহার করা সরঞ্জাম স্পর্শ করার পর অবশ্যই গোসল করতে হবে। তৎক্ষণাৎ গোসল সম্ভব না হলে অন্তত হাত-মুখ ধুতে হবে ভালোভাবে।

ছবির মডেল: শিহাব শাহরিয়ার। মেইকআপ: আহান রহমান। ফটোগ্রাফার: কেএ রহমান। ছবি সৌজন্যে: ইমাজিনইট।

আরও পড়ুন

সিজনাল ফ্লু  

ফ্লু: সাধারণ সর্দি-জ্বর নয়  

যে খাবার ‘ফ্লু’র বিরুদ্ধে লড়াইতে সাহায্য করে  

ঠাণ্ডা-জ্বরের জীবাণু থেকে বাঁচতে  


ট্যাগ:  লাইফস্টাইল  দেহঘড়ি