১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬

ওজন কমাতে আনারস

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-06-24 12:28:48 BdST

bdnews24

মজাদার আনারসে আছে ভিটামিন সি, ম্যাঙ্গানিজ এবং উপকারী অন্যান্য উপাদান।

এই গরমে সুস্থ থাকার পাশাপাশি স্বাস্থ্যসম্মতভাবে ওজন কমাতে আনারস সাহায্য করে।

খাদ্য ও পুষ্টি বিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে ওজন কমাতে আনারসের ভূমিকা সম্পর্কে এখানে জানানো হল।

১৬৫ গ্রাম আনারসে থাকে- ক্যালরি ৮২, চর্বি শূন্য (০), কোলেস্টেরল শূন্য (০), সোডিয়াম ২ মি.গ্রা., পটাশিয়াম ১২০ মি.গ্রা., কার্বোহাইড্রেট ১৫ গ্রাম, শর্করা ১১ গ্রাম, প্রোটিন ১ গ্রাম।

আনারস যেভাবে ওজন কমাতে সহায়ক: উপরের তথ্য থেকে বোঝা যায়, এতে ওজন বৃদ্ধিকারী চর্বি নাই। আনারসে কিছু পরিমাণে শর্করা থাকে। তবে তা ফলের ধরনের ওপর নির্ভর করে। 

আঁশ: এতে আছে দ্রবণীয় আঁশ যা পানির সংস্পর্শে জেলে রূপান্তরিত হয়। এতে পেট অনেকক্ষণ ভরা থাকে ও আজে বাজে খাবার খাওয়ার আগ্রহ কমে।

জলীয় অংশ: এতে পর্যাপ্ত জলীয় অংশ থাকে যা শরীর আর্দ্র রাখে। পর্যাপ্ত পানি গ্রহণ শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে। শরীরচর্চা করার পরে অথবা দুই বেলা খাবারের মাঝামাঝি সময়ে এক গ্লাস আনারসের শরবত খান এতে ক্ষুধা কমবে।

বিপাকে সাহায্য করে: এতে আছে ব্রমেইলিন যা প্রোটিন বিপাকে সাহায্য করে। প্রোটিন পেটের চর্বি কমাতে সাহায্য করে। এই এনজাইম ক্ষুধার চাহিদাও কমায়।

হজম: ব্রমেইলিন প্রাকৃতিক প্রদাহরোধী উপাদান সমৃদ্ধ যা হজমে সাহায্য করে। উন্নত হজম শক্তি দ্রুত ওজন কমানোর সহায়ক।

উন্নত কার্বোহাইড্রেট: ওজন কমাতে চাইলে ক্যালরি গ্রহণের দিকে অবশ্যই মনোযোগ দিতে হবে। সেক্ষেত্রে আনারস খুব ভালো সমাধান। এতে উন্নত কার্বোহাইড্রেট আছে, তবে সব সময় অবশ্যই তা পরিমিত পরিমাণে খেতে হবে।

খাওয়ার সঠিক উপায়

শরীরচর্চা করার আগে ও পরে শক্তির জন্য আনারস খেতে পারেন। এছাড়াও, আনারসের চাটনি, স্মুদি, রাইতা ইত্যাদি তৈরি করেও আনারস খেতে পারেন।

আরও পড়ুন

ফল খাওয়ার সঠিক পন্থা  

যেসব ফলে ওজন কমে  

ওজন কমাতে ফল যখন অন্তরায়  


ট্যাগ:  খাদ্য ও পুষ্টি  লাইফস্টাইল