সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিব্রতকর পরিস্থিতি এড়াতে

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-12-22 17:09:42 BdST

bdnews24
ছবি: রয়টার্স।

ফেইসবুকে এমন কিছু দেওয়া ঠিক নয় যা সঙ্গীর বিরক্তির কারণ হতে পারে।

বন্ধু বা পরিচিত কেউ আপনার বা আপনার সম্পর্কিত কোনো ছবি বা লেখা ফেইসবুকে দেওয়ার পর সেটা আপনার জন্য হয়েছে বিব্রতকর। সঙ্গে সঙ্গে হয়ত তাকে জানিয়েছে ‘পোস্ট’টা সরিয়ে নিতে।

একইভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার দেওয়া কোনো বিষয় যাতে অন্যের জন্য বিব্রতকর না হয় সেদিকেও নজর রাখা উচিত। বিশেষ করে নিজের মনের মানুষের ক্ষেত্রে আরও বেশি সচেতন হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে।

জীবনযাপন-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের সম্পর্ক ও অন্যান্য ব্যক্তিগত বিষয়গুলো উন্মুক্ত করে দেওয়ার আগে কী কী বিষয় মাথায় রাখা উচিত সে সম্পর্কে একটা ধারণা এখানে দেওয়া হল।

শোবার ঘরের ছবি প্রকাশ না করা: শোবার ঘর সবার জন্যই একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার। শোবার ঘরে তোলা ছবি বা সঙ্গীর ঘুমন্ত ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা তার কাছে ভালো না-ই লাগতে পারে।  তাই এমন কোনো ছবি প্রকাশ করার আগে সঙ্গীর অনুমতি নিয়ে নেওয়া ভালো।

ব্যক্তিগত বিষয়ে সচেতন থাকা: আপনার সঙ্গীর সুপার হিরোদের প্রতি আগ্রহ থাকতে পারে। এবং তাদের নানা রকমের পণ্য হয়ত তার সংরক্ষণে আছে। এই বিষয়টা সে অন্যদের না জানাতে চাইতেই পারে। তবে আপনি যদি এসব জিনিসের ছবি পোস্ট করেন তাহলে তা তার কাছে বিরক্তিকর বিষয় হিসেবে প্রকাশ পাবে। তাই এমন কোনো কাজ করার আগে অবশ্যই সঙ্গীর সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়া উচিত হবে।

সব উপহারের ছবি না দিলেও হয়: সঙ্গীর কাছ থেকে পাওয়া সব উপহারই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করার প্রয়োজন নেই। ছোটখাট সব কিছুই এভাবে সবার সামনে তুলে ধরার মানে হল, সঙ্গী আপনাকে কতটা ভালোবাসে বা যত্ন নেয় তা গোটা পৃথিবীকে জানাতে চাচ্ছেন। জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা যেমন- বাগদান, বিয়ে ইত্যাদি বিষয়গূলো অবশ্যই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করতে পারেন। তবে সব কিছু নিয়েই খুব বেশি বাড়াবাড়ি করার প্রয়োজন নেই।

বিতর্ক থাকুক নিভৃতে: নিজেদের মাঝে হওয়া ঝামেলা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রকাশ না করাই ভালো। সরাসরি না বললেও, আপনার ইঙ্গিতপূর্ণ কোনো স্ট্যাটাস যেমন- আজকাল কাউকেই আর বিশ্বাস করা যায় না, বুঝতে পারিনা কেনো মানুষ সব সময় দেরি করে ইত্যাদি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা হলে তা অন্যদের মনে প্রশ্নের সৃষ্টি করে। আপনি যদি সঙ্গীর কোনো বিষয়ে বিরক্ত থাকেন অথবা ও কোনো কারণে মনক্ষুণ্ন হন তাহলে সে বিষয়ে তার সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ। যার সমস্যা তার সঙ্গে কথা না বলে অন্যদের জানালে কোনোভাবেই তার সমাধান পাওয়া যায় না।

আরও পড়ুন

ফেইসবুকের ক্ষতিকর প্রভাব  

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সম্পর্ক নষ্ট করে না  

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কুফল এড়াতে  

ওজন কমাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম  

সঙ্গী যখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মগ্ন  


ট্যাগ:  প্রতিবেদন  লাইফস্টাইল