ত্বকের যত্নে নিমের তেল

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-09-17 12:39:08 BdST

bdnews24

নিম প্রাকৃতিকভাবে ব্যাক্টেরিয়া ও সংক্রমণরোধী যা ত্বক সুস্থ ও সুন্দর রাখতে সহায়তা করে।

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ভারতের এস্থেটিক ক্লিনিকের কস্মেটিক ডার্মাটোলোজিস্ট ও ডার্মাটো-সার্জন ডা. রিংকি কাপুর জানান, অনেক গবেষণায় দেখা গেছে, নিমে রয়েছে ‘অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল’, ‘অ্যান্টি ফাঙ্গাল’, ‘অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি’, ‘অ্যান্টিসেপ্টিক’, ‘অ্যান্টিপাইরেটিক’ উপাদান যা সার্বিকভাবে উপকারিতার জন্য জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

আর প্রদাহরোধী উপাদান ও আর্দ্রতা বর্ধক বলে ত্বকের নানান সমস্যার সমাধান হিসেবে নিমের তেলও বেশ কার্যকর।

শুষ্ক ত্বকের সমাধান

নিমের তেলে থাকা ভিটামিন ই সহজেই ত্বককে উদ্দীপিত করে, ফাটা দূর করে ও আর্দ্রতা রক্ষার মাধ্যমে ত্বককে মসৃণ করে তোলে।

ব্যবহার পদ্ধতি: হাতের তালুতে লোশন নিয়ে তাতে দুতিন ফোঁটা নিমের তেল মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করুন। এটা ত্বকের শুষ্কতা দূর করবে। চাইলে কাঠ-বাদাম বা তিলের তেলের সঙ্গে ৭০:৩০ অনুপাতে নিমের তেল মিশিয়ে ময়েশ্চারাইজার বানিয়ে ব্যবহার করা যায়। সারা শরীরে এটা ব্যবহার করে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে।

বলিরেখা দূর করে

ক্যারোটেনয়েডস, ওলেয়িক অ্যাসিড এবং ভিটামিন ই ত্বকের কোষকলা ও স্থিতিস্থাপকতা বাড়ায়। আর ত্বক রাখে আর্দ্র। ফলে বয়সের ছাপ কমে, ত্বক টানটান, কোমল ও মসৃণ হয়।

ব্যবহার পদ্ধতি: বলিরেখা দূর করতে ৩০ মি.লি. নিমের তেল, ২০০ মি.লি. জোজোবা তেল ও পাঁচ ফোঁটা খাঁটি ল্যাভেন্ডার তেল একসঙ্গে মেশান। ব্যবহারের আগে ভালো মতো ঝাঁকিয়ে নিতে হবে। দিনে দুতিন বার ব্যবহারে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে। 

আর্দ্রতা ধরে রাখে

এতে থাকা ফ্যাটি অ্যাসিড ও ভিটামিন ই সহজেই ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ত্বককে মসৃণ রেখে শুষ্কভাব দূর করে।

ব্যবহার পদ্ধতি: গোলাপ জল দিয়ে ত্বক আর্দ্র করে নিয়ে জোজোবা ও নিমের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করতে হবে। ৩০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ব্রণের সমাধান

নিমের ব্যাক্টেরিয়া রোধী উপাদান ত্বককে ব্রণ থেকে সুরক্ষিত রাখে। এছাড়াও এর লিনোলিক অ্যাসিড ব্যাক্টেরিয়া দূর করে ত্বক মসৃণ রাখার পাশাপাশি ব্রণের দাগ কমাতে সাহায্য করে।

ব্যবহার পদ্ধতি: পানির সঙ্গে ১/৪ চা-চামচ নিমের তেল, মূলতানি মাটি মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখ ও ব্রণ আক্রান্তস্থানে মেখে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করে সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

আক্রান্ত স্থানে কয়েক ফোঁটা নিমের তেল মেখে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। চাইলে তুলার বলের সাহায্যে এই তেল ব্যবহার করা যায়। ভালো ফল না পাওয়া পর্যন্ত নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে।

তবে কোনো কিছুর সঙ্গে না মিশিয়ে শুধু নিমের তেল ব্যবহার করলে ত্রিশ মিনিটের বেশি শরীরে রাখা যাবে না।

আরও পড়ুন

চুলের বৃদ্ধিতে জলপাইয়ের তেলের ভূমিকা  

ত্বকের তৈলাক্তভাব কমানোর উপায়  

ভ্রু ঘন করার চারটি তেল  

চুলের যত্নে ক্যাস্টর তেল  


ট্যাগ:  লাইফস্টাইল  সাজসজ্জা