পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

তারুণ্য ধরে রাখতে বাদাম

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-01-08 18:14:31 BdST

bdnews24

খাবারের মাধ্যমে ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে চাইলে সেরা পছন্দ হতে পারে বাদাম।

মজাদার নাস্তার পাশাপাশি বাদাম শরীর ও ত্বকের জন্য উপকারী।

যুক্তরাষ্ট্রের পুষ্টিবিদ লেক্সি এন্ডিকট বলেন, “প্রতিদিনের খাবার তালিকায় বাদাম রাখা তারুণ্য ধরে রাখতে সহায়ক।”

ইটদিস নটদ্যাট ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে টেক্সাসের ‘টু টেস্ট’ নামক রান্নাবিষয়ক পুষ্টি শিক্ষা এবং পরামর্শ সংস্থার এই পরামর্শক আরও বলেন, “বাদামে নানান রকমের ভিটামিন, খনিজ, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, কম গ্লাইসেমিক, আঁশ, প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর চর্বি থাকায় তা যে কোনো নাস্তা যেমন- চিপ্স, ক্যান্ডি বা সোডার স্বাস্থ্যকর বিকল্প হিসেবে কাজ করে। আর এতে তারুণ্য বজায় রাখতেও সহায়তা করে।”

কাঠ বাদাম: ‘ফার ইন্সটিটিউট’য়ের পরিচালক ভিক্টোরিয়া গ্লাস বলেন, “কাঠ বাদাম ভিটামিন ই’য়ের ভালো উৎস যা ত্বককে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির কারণে হওয়া ক্ষয় থেকে বাঁচায়, আর্দ্রতা ধরে রাখে এবং কোষের ক্ষয় রোধ করে। এগুলো ত্বককে সুস্থ ও উজ্জ্বল রাখে। ফলে তারুণ্য ফুটে উঠে।”

আখরোট: ডা. গ্লাস অন্যান্য বিশেষজ্ঞদের মতোই মনে করেন, “আখরোটে আছে প্রদাহরোধী ওমেগা-ত্রি ফ্যাটি অ্যাসিড যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় এবং ত্বকের ঝিল্লি দৃঢ় করে।”

যুক্তরাষ্ট্রের ‘কিলো হেল্থ’য়ের প্রধান পুষ্টি ও সুস্থতা বিশেষজ্ঞ এবং নিবন্ধিত পুষ্টিবিদ ক্রিস্টিনা জালনিয়েরাইটে বলেন, “আখরোট পলিফেনলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎসগুলোর একটিকে প্রতিনিধিত্ব করে। এই পলিফেনলগুলোতে রয়েছে একটি উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং প্রদাহ-রোধী বায়োঅ্যাকটিভিটি। যা ক্যান্সার, হৃদরোগ এবং স্নায়ুজনিত রোগের বিরুদ্ধে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।”

পেস্তা: পেস্তা বাদাম উচ্চ পলিফেনল এবং ফ্লাভানয়েড সমৃদ্ধ যা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং প্রদাহ-রোধী উপাদানের মতো কাজ করে বলে জানান, জালনিয়েরাইটে।

বায়োঅ্যাকটিভ যৌগগুলোর উচ্চ উপাদানের কারণে পেস্তা বাদাম শীর্ষ ৫০টি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবারের তালিকায় সুপরিচিত।

নিবন্ধিত পুষ্টিবিদ এবং ‘প্যাসিফিক অ্যানালিটিক’য়ের সুশান কেলি বলেন, “পেস্তাতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ব্রণ কমায় এবং ত্বকের কোষের ক্ষতি হ্রাস করে।” 

কাজু বাদাম: কাঁচা কাজুবাদামে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, খনিজ পদার্থ, অ্যামিনো অ্যাসিড, ফাইটোস্টেরল এবং প্রচুর পরিমাণে আঁশসহ নির্দিষ্ট কিছু বায়োঅ্যাকটিভ যৌগ পাওয়া যায়, জানান জালনিয়েরাইটে।

এটা হৃদরোগ, মৃত্যু ঝুঁকি, বিপাকীয় দুর্বলতা এবং ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায়।

কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে এই বাদামগুলো মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এবং হাড়ের সুস্থতায়ও অবদান রাখে। 

ব্লাজিল নাট: কেলির মতে, “এটা ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং সেলেনিয়ামে ভরপুর যা ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বাড়ায় এবং ব্রণের প্রদাহ কমায়।”

এছাড়াও, এতে গ্লুটাথিয়ন থাকায় ত্বককে সতেজ রাখতে, স্থিতিস্থাপকতা বাড়াতে এবং বলিরেখা কমাতে সহায়তা করে।”

আরও পড়ুন

কাঠবাদাম যাদের খাওয়া ঠিক না  

বাদাম ওজন কমাতেও সাহায্য করে  

ডায়াবেটিকদের জন্য চিনাবাদাম খাওয়ার উপকারিতা  

রেসিপি: বাদাম ভর্তা