পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

কেশ সজ্জায় পুষ্প

  • মনি ইয়াছিন, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2014-03-17 10:14:03 BdST

মোর কথা যদি মনে পড়ে সখি, যতনে বাঁধিও চুল, আলসে হেলিয়া খোপায় বাঁধিও মাঠের কলমী ফুল।

জসীম উদ্‌দীনের নায়িকা সাজুর মতো কলমী ফুলে খোঁপা না সাজালেও উৎসব-অনুষ্ঠানে ফুল দিয়ে চুল সাজানো বাঙালি নারীর সাজের ঐতিহ্য। আমাদের দেশের কবি সাহিত্যিকগণও খোঁপার ফুল নিয়ে লিখেছেন নানান গল্প, কবিতা।

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম তার প্রিয়ার খোঁপায় দিতে চেয়েছিলেন তারার ফুল।

খোঁপায় ফুল না দিলে যেন বাঙালি নারীর সাজ সম্পূর্ণ হয় না। তবে শুধু খোঁপায় নয়, চুলের নানান রকম সাজ, সেই সঙ্গে চুলে ব্যবহার করা বাহারি রং-ঢংয়ের ফুল মেয়েদের সৌন্দর্যে বাড়তি মাত্রা যোগ করে।

কবি নজরুলের তারার ফুল না হোক, চুলে পরার ফুল হিসেবে লাল গোলাপ আর বেলীফুলের গাজরা প্রধান্য পেয়ে আসছে যুগ যুগ ধরে।

ফুলে ফুলে কেশ সাজাতে বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছেন নভিনস্ অ্যারোমা থেরাপি সেন্টারের রূপবিশেষজ্ঞ আমেনা হক।

চন্দ্রমল্লিকা, জারবেরা বা জিনিয়া ফুল চুলের সাজে আনতে পারে নতুনত্ব। এই ফুলগুলোর বাহারি রং আর গোলাকার আকৃতি হওয়ায় সহজেই নজর কাড়ে। কানের পাশে গুঁজে দিতে বা খোঁপায় পরতে এই ফুলগুলো সুবিধাজনক।

একেবারেই অন্যকিছু করতে চাইলে ব্যবহার করতে পারেন রঙ্গন, জিপসি, গ্ল্যাডিওলাস, চাঁপা, বকুল বা কাঠগোলাপের মতো ফুল। পোশাকের রংয়ের সঙ্গে মিলিয়ে বাহারি ফুল ব্যবহার করলে দেখতে সুন্দর লাগবে।

সাদা, গোলাপি, কমলা, হলুদ ইত্যাদি নানান বর্ণের ফুল আপনার এবং আপনার চুলের সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলবে বহুগুণ।

অর্কিডের মতো আকর্ষনীয় ফুল একসময় দুষ্প্রাপ্য ছিল, আজ বাজারে তা সহজলভ্য। চুল সাজতে ব্যবহার করতে পারেন অর্কিড। নানান রংয়ের সমাহারের কারণে সহজেই খুঁজে পাওয়া যায় কাঙ্ক্ষিত রং। খোলাচুলে বা বেণিতে গুঁজে দেওয়া অর্কিড সাজে আনবে ভিন্নতা।

অনেকের মনে করেন শাড়ি ছাড়া অন্য কোনো পোশাকের সঙ্গে চুলে ফুল পরলে ভালো দেখাবে না। শুধু শাড়ি কেন, সালোয়ার-কামিজ বা ফতুয়ার সঙ্গেও ফুল সমান মানানসই।

সেক্ষেত্রে চুলে ফুল সাজানোর পদ্ধতিটা হতে হবে একটু ভিন্ন।

যারা ফুল দিয়ে চুল সাজাতে ভালোবাসেন তারা মুখের আকৃতির সঙ্গে মিলিয়ে ফুল দিয়ে চুল সাজাতে পারেন।

যাদের লম্বা মুখ, লম্বা চুল; তারা কানের পাশের চুলে কয়েকটি ছোট ফুল লাগিয়ে নিলে ভালো দেখাবে। তবে চুল বেশি লম্বা হলে খোঁপায় ফুল পরতে পারেন।

ছোট চুল বা গোল মুখে খোলা চুলের একপাশে একটি ফুল পরা যায়। বেলি ফুলের মালা খোঁপায় মানায় বেশি।

সালোয়ার-কামিজ বা ফতুয়ার সঙ্গে ফুল পরতে চাইলে চুল বাঁধলেই বেশি ভালো লাগে। এক্ষেত্রে কানের পাশে ফুল গুঁজে দিতে পারেন।

শুধু তাজাফুলই নয়, চুলে পরার জন্য এখন পাওয়া যায় কাপড়, প্লাস্টিক ও ফাইবারের তৈরি নানান রকমের ফুল! এগুলো দেখতে একদম সত্যিকারের ফুলের মতোই মনে হয়। তাজা ফুল না পেলে এগুলো দিয়েও সাজতে পারেন।

মেইকআপ : আমেনা হক।

মডেল : নওরিন।

ছবি : জাকির হোসেন।