পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

উত্তেজনা বাড়াতে কফি

  • লাইফস্টাইল ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2015-05-26 17:58:03 BdST

গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন মাত্র দুই কাপ কফি যৌনজীবনে নাটকীয় উন্নতি ঘটাতে পারে।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের এক গবেষণার ফলাফল থেকে জানানো হয়, যেসব পুরুষ দৈনিক দুই কাপ কফি পান করেন, তাদের পুরুষাঙ্গ দৃঢ় করার সমস্যায় ভোগার সম্ভাবনা অন্যান্য পুরুষের তুলনায় প্রায় ৪২ শতাংশ কমে যায়।

আমেরিকার সায়েন্স জার্নাল প্লস ওয়ান’য়ে প্রকাশিত এই গবেষণার প্রতিবেদনের জন্য গবেষকরা ক্যাফেইনযুক্ত পানীয়, যেমন: কফি, চা, ফিজি এবং স্পোর্টস ড্রিংকস পান করেন এমন চার হাজার পুরুষ নিয়ে এই পর্যালোচনা করেন। ওজন, বয়স এবং রক্তচাপের তারতম্য থাকার পরেও নির্বিশেষে এইসব পুরুষের ক্ষেত্রে একই ফলাফল পাওয়া গেছে।

গবেষকদের বিশ্বাস, ক্যাফেইন শরীরে বিশেষ রাসায়নিক ক্রিয়া শুরু করে যা পুরুষাঙ্গের মাংসপেশী প্রশমিত করে রক্ত চলাচল বাড়ায়। 

তবে দৈনিক দুই কাপ কফিই হতে পারে সীমারেখা। কারণ গবেষণায় আরও দেখা যায়, দৈনিক তিন কাপ কফি পান করায় সমস্যার পরিমাণ খানিকটা কমে হয় ৩৯ শতাংশ।

অপরদিকে ডায়বেটিসে আক্রান্ত পুরুষদের উপর এর কোনো প্রভাব নেই।

ডেইলি টেলিগ্রাফে প্রকাশিত ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের অধ্যাপক ডেভিড লোপেজ বলেন, “স্থূলতা, বাড়তি ওজন এবং উচ্চ রক্তচাপজনিত সমস্যায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের উপর কফির এই সুফল লক্ষ করা গেলেও, ডায়বেটিসে আক্রান্ত পুরুষের উপর এর কোনো প্রভাব পাওয়া যায়নি।”

পূর্ববর্তী গবেষণায় দেখা গেছে, মহিলাদের ‘সেক্স ড্রাইভ’ বাড়াতেও কার্যকর কফি।

২০০৬ সালে টেক্সাসের সাউথওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির গবেষকরা ইঁদুরের উপর করা এক গবেষণায় দেখতে পান কফি পানের ফলে মস্তিষ্কের  বিশেষ অংশ উদ্দীপ্ত হয় যা যৌন সংকেত সক্রিয় করে। তবে যেসব মহিলা নিয়মিত কফি পানে অভ্যস্ত নয় তাদের ক্ষেত্রেই এটা  কার্যকর।

অতিরিক্ত কফি পান করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কিনা এই বিষয়ে বহুদিন ধরেই তর্ক-বিতর্ক চলে আসছে বিজ্ঞানীদের মধ্যে। অনেকের মতে, দৈনিক চার কাপের বেশি কফি পান করা বিপজ্জনক। কারণ এতে শারীরিক অস্থিরতা, কাঁপুনি, বিরক্তিভাব, অনিদ্রা এবং পেটব্যথা হতে পারে।

আবার ২৫ হাজার মধ্যবয়স্ক পুরুষ ও মহিলাকে নিয়ে করা এক পৃথক গবেষণায় দেখা গেছে, দৈনিক তিন থেকে পাঁচ কাপ কফি হৃদরোগ এবং স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি কমায়।

গবেষণায় আরও দেখা গেছে, যারা কম এবং প্রচুর কফি পান করেন, তাদের ধমনী আটকে যাওয়ার ঝুঁকি বেশি। এতে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

ছবি: রয়টার্স।

কফি’র উপকার অপকার

স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে কফি

সুস্থ থাকতে অদ্ভুত কৌশল

রাজধানীতে কফি’র রেস্তোরাঁ

সৌন্দর্য চর্চায় কফি

কফি এবং পিৎজার রেস্তোরাঁ

কফি আর আইসক্রিম একসঙ্গে