আমেথিতে বিজেপির নির্বাচনকর্মীকে গুলি করে হত্যা

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-05-26 13:22:29 BdST

bdnews24

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে উত্তর প্রদেশের আমেথি আসনে বিজয়ী বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানির পক্ষে সরব এক প্রচারকর্মীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

দীর্ঘ দিন ধরে নেহেরু-গান্ধি পরিবারেরর দখলে থাকা এই আসনে ভারতীয় কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধিকে পরাজিত করে গত বৃহস্পতিবার বিজয়ী হন সাবেক টিভি অভিনেত্রী ও বিজেপি সরকারের মন্ত্রী স্মৃতি।

তার নির্বাচনকর্মী স্থানীয় বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র সিংকে শনিবার গভীর রাতে বারাউলিয়া গ্রামের নিজ বাড়িতে গুলি করা হলে আহত অবস্থায় হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় বলে পুলিশের বরাত দিয়ে এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে।

আমেথির পুলিশ সুপার রাজেশ কুমার বলেন, “রাত প্রায় ৩টার দিকে তাকে গুলি করা হয়। আমরা সন্দেহভাজন কয়েকজনকে আটক করেছি, তদন্ত চলছে।”

হামলার পেছনের কারণ নিয়ে নির্দিষ্টভাবে কিছু বলতে না পারলেও এর পেছনে ‘পুরনো বিবাদ বা রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব’ থাকতে পারে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তার ধারণা।

বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্মৃতি ইরানি এরই মধ্যে আমেথির উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। দিনের শেষ ভাগে তিনি সুরেন্দ্র সিংয়ের পরিবারের সঙ্গে দেখা করবেন।

বারাউলিয়া গ্রামটি ২০১৫ সালে ‘সানসাদ আদার্শ গ্রাম ইয়োজনা’ নামে কেন্দ্রীয় সরকারের গ্রাম উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় আসে। এই গ্রামের সাবেক প্রধান ছিলেন সুরেন্দ্র। এবার বিজেপির নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেওয়ার জন্য তিনি ওই পদ ছেড়ে দেন।

পরিবারের সদস্যদের ভাষ্য, তিনি স্মৃতি ইরানির পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে সক্রিয়ভাবে অংশ নিয়ে জনসভায় বিজেপি নেত্রীর ভাষণে প্রশংসাও কুড়িয়েছেন।

তার ছেলে এএনআইকে বলেন, আমার বাবা স্মৃতি ইরানির ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন এবং দিন-রাত তার পক্ষে প্রচারে থাকতেন। তার জয়ের পর আমেথিকে একটি বিজয় মিছিল বের করা হয়। আমার মনে হয়, কিছু কংগ্রেস সমর্থকের এটা পছন্দ হয়নি।’

কংগ্রেসপ্রধান রাহুলকে ৫৫ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়েছেন স্মৃতি ইরানি। পারিবারিক আসনে এই পরাজয় লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবি হওয়া গান্ধি পরিবারের জন্য একটি বড় বিড়ম্বনা।

বিজেপি নেত্রী গত তিন মাসে এই আসনে লাগাতার প্রচার চালিয়েছেন; গত পাঁচ বছরে নিয়মিত এই এলাকায় এসেছেন। অন্যদিকে ২০০৪ সাল থেকে নিজ দখলে থাকা এই আসনে নির্বাচন ঘিরে খুব কমই এসেছেন রাহুল। ১৯৯৮ সাল ছাড়া গত তিন দশকে আমেথি কখনও হারায়নি কংগ্রেস।

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি দ্বিতীয় বারের মতো ব্যাপক বিজয় পেয়েছে; যেখানে ৫৪২টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস পেয়েছে মাত্র ৫২টি।