ভারতে রেলস্টেশনে মৃত মা’কে জাগাতে শিশুর ব্যর্থ চেষ্টার ভিডিও ভাইরাল

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-28 18:21:54 BdST

bdnews24

ভারতের একটি রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মে মৃত মা’কে ঘুমন্ত মনে করে, তাকে জাগাতে অবুঝ এক শিশুর ব্যর্থ চেষ্টার ভিডিও দেশটিতে লকডাউনের মধ্যে বাড়ি ফেরার চেষ্টা করা পরিযায়ী শ্রমিকদের অবর্ণনীয় দুঃখ দুর্দশার সকরুণ চিত্র তুলে ধরেছে।

সোমবার বিহারের মুজাফফরপুর রেলওয়ে স্টেশনে মৃত মা’কে জাগাতে তার চাদর ধরে শিশুটির টানাটানির ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের নাড়া দিয়েছে।

রাষ্ট্রীয় জনতা দলের নেতা তেজস্বী যাদবের উপদেষ্টা সঞ্জয় যাদব বুধবার টুইটারে এই ভিডিওটি শেয়ার করে কেন্দ্র ও রাজ্যে ক্ষমতাসীনদের কড়া সমালোচনা করেছেন বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

ভিডিওতে শিশুটিকে মায়ের শরীরের আশপাশে হাঁটতে ও মাকে ঢেকে রাখা চাদর নিয়ে খেলতে এবং ওই চাদর দিয়ে নিজের মাথা ঢাকার চেষ্টা করতে দেখা গেছে। ব্যাকগ্রাউন্ডে শোনা যাচ্ছিল স্টেশনে ট্রেন আসা-যাওয়ার ঘোষণা। এসব ট্রেনে করেই বড় বড় শহর থেকে গ্রামের বাড়িতে ফিরেছে কাজ হারানো লাখ লাখ শ্রমিক।

“ছোট এ শিশুটি জানে না, যে চাদর নিয়ে সে খেলছে তা আসলে তার চিরঘুমে ঢলে পড়া মাকে ঢেকে রাখার কাপড়। চারদিন ট্রেনে থাকা এ মা ক্ষুধা আর তৃষ্ণায় মারা গেছেন। ট্রেনে এসব মৃত্যুর দায়ভার কার? বিরোধীদের এসব নিয়ে কথা বলা কি উচিত নয়?,” ভিডিও শেয়ার করে টুইটটিতে বলেছেন সঞ্জয়।

 

পুলিশ বলছে অন্য কথা। তাদের মতে, ভিডিওতে থাকা ৩৫ বছর বয়সী নারীটি খাবার বা পানির অভাবে মারা পড়েননি। 

“বোন এবং বোনজামাইয়ের সঙ্গে ওই নারী আহমেদাবাদ থেকে মুজাফফরপুর আসার পথে হঠাৎ করেই ট্রেনে মারা যান। তাদের খাবার বা পানির সংকটে পড়তে হয়নি বলে বোনজামাই জানিয়েছেন। আহমেদাবাদে গত এক বছর ধরে ৩৫ বছর বয়সী এ নারীর ‘কিছু অসুখের’ চিকিৎসা চলছিল। তার মানসিক অবস্থাও খানিকটা অস্থিতিশীল ছিল,” বলেছেন মুজাফফরপুর রেলওয়ে পুলিশের ডেপুটি সুপারিনটেন্ডেন্ট রমাকান্ত উপাধ্যায়।

মৃত্যুর প্রকৃত কারণ উদ্ঘাটনে ময়নাতদন্ত চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

“কীভাবে মৃত্যু হয়েছে, তা কেবল চিকিৎসকরাই বলতে পারবেন,” বলেছেন এ পুলিশ কর্মকর্তা।