ভারতের নাগাল্যান্ডে কুকুরের মাংস নিষিদ্ধ

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-04 18:27:12 BdST

bdnews24
চীনের একটি বাজারে বিক্রির জন্য কয়েকটি কুকুরকে খাঁচাবন্দি করে রেখে দেওয়া হয়েছে। ছবি: হিউম্যান সোসাইটি ইন্টারন্যাশনাল/রয়টার্স

প্রাণী অধিকার কর্মীদের আন্দোলনের জেরে কুকুরের মাংসের আমদানি, বাণিজ্য ও বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে ভারতের নাগাল্যান্ড রাজ্য সরকার।

রাজ্য সরকারের এ ঘোষণার পর পশু কল্যাণ নিয়ে কাজ করা গোষ্ঠীগুলো একে ‘উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি’ বলে মন্তব্য করে সিদ্ধান্তটির প্রশংসা করেছে, কিন্তু স্থানীয় কিছু সামাজিক গোষ্ঠী একে স্থানীয় খাদ্যাভ্যাসের ওপর ‘হামলা’ উল্লেখ করে এর সমালোচনা করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। 

ভারতের বিভিন্ন অংশে কুকুরের মাংস খাওয়া নিষিদ্ধ হলেও দেশটির উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় এলাকাগুলোতে একে সুখাদ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়। 

শুক্রবার এক টুইটে নাগাল্যান্ডের মুখ্য সচিব তেমজেন টয় বলেছেন, “রাজ্য সরকার বাণিজ্যিকভাবে কুকুর আমদানি ও ব্যবসা, কুকুরের বাজার এবং কুকুরের কাঁচা ও রান্না করা মাংস নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

এই নিষেধাজ্ঞা কীভাবে কার্যকর করা হবে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

একটি কাঁচা বাজারে কয়েকটি কুকুরকে বস্তায় ভরে বিক্রির জন্য রেখে দেওয়া হয়েছে, সোশাল মিডিয়ায় এমন একটি ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর ব্যাপক ক্ষোভ দেখা দেয় বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম। 

বৃহস্পতিবার ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান এনিমাল প্রোটেকশন অর্গানাইজেশন (এফআইএপিও) বলেছে, “অত্যন্ত অমানবিক অবস্থায় কয়েকটি কুকুরকে বস্তায় ভরে রাখার সাম্প্রতিক ছবিগুলো মর্মাহত ও আতঙ্কিত হওয়ার মতো, এদের অবৈধভাবে হত্যা, ব্যবসা ও মাংস হিসেবে খাওয়ার জন্য কাঁচা বাজারে রেখে অপেক্ষা করা হচ্ছিল।” 

কুকুরের মাংস বিক্রি বন্ধে আশু পদক্ষেপ নেয়ার জন্য নাগাল্যান্ড সরকারের প্রতি আহ্বান জানায় গোষ্ঠীটি।

এফআইএপিও, পিপল ফর দ্য এথিকাল ট্রিটমেন্ট অফ অ্যানিম্যালসসহ (পিইটিএ) বেশ কয়েকটি পশু অধিকার গোষ্ঠী নাগাল্যান্ডে কুকুরের মাংস বিক্রির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসছিল।

ভারতে কুকুরের মাংসের বাণিজ্য বন্ধ করার জন্য বছরে পর বছর ধরে আন্দোলন করে আসা হিউম্যান সোসাইটি ইন্টারন্যাশনাল (এইচএসআই) নাগাল্যান্ড সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।

এইচএসআইয়ের তথ্যানুযায়ী, প্রতি বছর প্রায় ৩০ হাজার কুকুর নাগাল্যান্ডে পাচার করা হয়, সেখানে এদের খোলা বাজারে বিক্রি করা হয় তারপর বিক্রি হওয়া কুকুরকে ‘কাঠের মুগুর দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়’।

চলতি বছরের প্রথমদিকে ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় আরেক রাজ্য মিজোরামও কুকুরের মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ করে।    

ব্যাপকভাবে না হলেও চীন, দক্ষিণ কোরিয়া ও থাইল্যান্ডের মতো কয়েকটি দেশেও কুকুরের মাংস খাওয়া হয়।