পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ভারতের উত্তরাখণ্ডে দুর্যোগে মৃত্যু বেড়ে ৪৬

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-10-20 11:15:58 BdST

bdnews24

ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যে গত কয়েক দিন ধরে চলা প্রবল বৃষ্টিতে সৃষ্ট বিপর্যয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে অন্তত ৪৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

বুধবার রাজ্য সরকারের সংশোধিত পরিসংখ্যানে এমনটি দেখা গেছে বলে জানিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

ভারতীয় আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি) এক পূর্বাভাসে বলেছে, বুধবার থেকে বৃষ্টিপাতে উল্লেখযোগ্যভাবে কমবে, এরপর থেকে রোববার পর্যন্ত আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

চলতি সপ্তাহে উত্তরাখণ্ডে বৃষ্টিপাতের নতুন রেকর্ড হয়েছে। চার দিন ধরে চলা ভারি বৃষ্টিতে বন্যা, ভূমিধস ও সম্পদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বৃষ্টি ও বন্যার পানির তোড়ে ঘরবাড়ি, সেতু ধসে পড়েছে; ভূমিধসে মহাসড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বহু এলাকায় সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

ভারতের জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলা বাহিনী (এনডিআরএফ), সেনাবাহিনী ও স্থানীয় কর্তৃপক্ষগুলো উদ্ধার ও ত্রাণ অভিযান পরিচালনা করছে।

উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামি মৃতদের প্রত্যেকের পরিবারকে চার লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

রাজ্যটির রানিখেত ও আলমোড়া জেলা সমতল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া রানিখেতে ডিজেল, পেট্রল, অকটেন ইত্যাদি জ্বালানির অভাব দেখা দিয়েছে। বুধবার টানা দ্বিতীয় দিনের মতো জরুরি পরিষেবার জন্য জ্বালানি রেশনিং করতে হয়েছে।

দেরাদুন থেকে প্রায় ৩২০ কিলোমিটার দূরের রানিখেত প্রায় জ্বালানি শূন্য হয়ে পড়েছে। যেটুকু জ্বালানি অবশিষ্ট আছে তা জরুরি পরিষেবার জন্য রেখে দেওয়া হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা পর বিদ্যুৎ ব্যবস্থা সচল করা গেলেও লো-ভোল্টেজের কারণে প্রয়োজনীয় সেবা মিলছে না। বহু জায়গায় ফাইবার অপটিক ক্যাবল বিচ্ছিন্ন হওয়ায় টেলিফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবায় মারাত্মক বিঘ্ন ঘটছে।

দেরাদুন থেকে প্রায় ৩৪৫ কিলোমিটার দূরের আলমোড়ায় বৃষ্টিজনিত বিভিন্ন ঘটনায় সাত জনের মৃত্যু হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে।

পর্বতময় রাজ্যটির কুমায়ুন অঞ্চল ভারি বৃষ্টিপাতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয়েছে। এখানে বহু ঘরবাড়ি ধসে ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেক মানুষ চাপা পড়েছেন।

উত্তরাখণ্ডের বিভিন্ন বন্যাকবলিত এলাকা থেকে ৩০০ জনেরও বেশি মানুষকে উদ্ধার করেছে এনডিআরএফ। রাজ্যটিতে ১৫টি টিম মোতায়েন করেছে তারা।