ENG
২১ নভেম্বর ২০১৭, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

কৃষকদের রক্ষার কেউ নেই: মোরশেদ আলী

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2017-10-20 01:19:29 BdST

বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে কৃষক-শ্রমিকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখলেও এখন তাদের স্বার্থ দেখার কেউ নেই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ কৃষক সমিতির সভাপতি মোরশেদ আলী।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর পুরানা পল্টনের মুক্তি ভবনে ‘মহান রুশ অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ: কৃষি ও গ্রামীণ অর্থনীতির বিপ্লবী পুনর্গঠন’ শিরোনামের আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

অক্টোবর বিপ্লব শতবর্ষ উদযাপন জাতীয় কমিটির আহ্বানে দেশের প্রগতিশীল কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগঠনগুলো যৌথভাবে এ সভার আয়োজন করে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, “রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করা ছাড়া বিপ্লব সম্ভব হবে না। বিপ্লবী আন্দোলন সংস্কারমূলক আন্দোলন নয়। আজকে কৃষকের পক্ষে সব কৃষকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংগঠনকে দাঁড়ানোর কথা ছিল, তারা সেভাবে দাঁড়াতে পারেনি বলেই এনজিও কৃষকদের মাঝে চলে গেছে, এনজিওর সমস্ত তৎপরতা বিপ্লববিরোধী তৎপরতা। সেখানে মহাজন চলে গেছে, ক্ষুদ্র ঋণওয়ালা চলে এসেছে।

“সেই জায়গাতে বিপ্লব করার জন্য যে প্রস্তুতি, সেই প্রস্তুতিকে এগিয়ে নিতে আমরা অক্টোবর বিপ্লব থেকে শিক্ষা নিব। সেই শিক্ষা হবে ভ্লাদিমির লেনিন যে সংগঠন করেছেন, ধারাবাহিক যেভাবে আন্দোলন করেছেন, আপস করেননি এবং রাষ্ট্রকে দখল করে ভেঙে ফেলেছেন, সেই জায়গাতে আমাদের যেতে হবে।”

কৃষক সমিতির সভাপতি মোরশেদ আলী

কৃষক সমিতির সভাপতি মোরশেদ আলী

এই প্রসঙ্গে আলোচনায় মোরশেদ আলী বলেন, “শুধু অক্টোবর বিপ্লবই নয়, আমাদের স্বাধীনতা আন্দোলনে প্রধান ছিলেন কৃষক-শ্রমিকরা। আর স্বাধীনতার পর এখন কৃষকদের ফসল বন্যায় ভেসে যায়, তাদের রক্ষা করার কেউ নেই।”

সভায় সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের সভাপতি বজলুর রশীদ ফিরোজ বলেন, “উপমহাদেশের ইতিহাস কৃষক বিপ্লবের ইতিহাস। আমাদের দেশ এখনও কৃষি প্রধান দেশ। এই দেশে সংগ্রাম-বিপ্লব করতে হলে কৃষকদের ছাড়া সম্ভব নয়। তাই সবার আগে কৃষকদের সংগঠিত করতে হবে।”

বাংলাদেশ কৃষক-মজুর সংহতির নেতা আবুল হাসান রুবেল বলেন, “বিপ্লবের বার্তা নিয়ে আমরা কৃষকদের কাছে যেতে পারিনি, সেই কথা সঠিক নয়। আসলে কৃষক-শ্রমিক ও সাধারণ জনগণের যে সমস্যা আমরা তা রাজনীতির মূখ্য ইস্যু তৈরি করতে পারিনি। সে কারণে বুর্জয়ারা তাদের মতো করে দখল করে নিয়েছে। রাজনৈতিক বিপ্লব ছাড়া মৌলিক পরিবর্তন সম্ভব নয়।”

মাসব্যাপী অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ পালনের অংশ হিসেবে এই আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক।

অন্যদের মধ্যে সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মিঠু, বিপ্লবী কৃষক সংহতির নেতা আনছার আলী দুলাল, বাংলাদেশ কৃষক ফোরামের নেতা মুমিনুর রহমান, জাতীয় কৃষক ক্ষেতমজুর সমিতির নেতা টিপু বিশ্বাস বক্তব্য দেন।