২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬

টিআইবি বিএনপি-জামায়াতের প্রতিবেদন দিয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-16 12:01:49 BdST

bdnews24
ফাইল ছবি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তা প্রত্যাখান করে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, এটি ‘বিএনপি-জামায়াতের পক্ষে’ একটি প্রতিবেদন।

বুধবার চট্টগ্রামের দেওয়ানজী পুকুর পাড়ে নিজের বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “নির্বাচন নিয়ে যে বক্তব্য-গবেষণার কথা বলে টিআইবি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তাতে আর বিএনপির বক্তব্যের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। প্রকৃতপক্ষে বিএনপি-জামায়াতের পক্ষে টিআইবি একটি প্রতিবেদন দিয়েছে মাত্র। অন্য কোনো কিছু নয়।”

গত মঙ্গলবার টিআইবির ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশের ৩০০ আসনের মধ্যে ৫০টির ভোট পরিস্থিতি নিয়ে সমীক্ষা চালিয়ে ৪৭ আসনেই কোনো না কোনো নির্বাচনী অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে তারা।

হাছান মাহমুদ বলেন, “টিআইবির বেশিরভাগ প্রতিবেদন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, ত্রুটিপূর্ণ, একপেশে, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।”

টিআইবির মত ‘আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান’ বিভিন্ন সময়ে ‘মনগড়া কল্পকাহিনি’ প্রকাশ করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করছে বলে মন্তব্য করেন এই আওয়ামী লীগ নেতা।

তিনি বলেন, “প্রকৃতপক্ষে দেশে কয়েকটি সংগঠন আছে যারা দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে নয়, বরং দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার কাজে লিপ্ত থাকে। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে এবং বলে তাদের গবেষণাপ্রসূত প্রতিবেদন।”

এর আগে টিআইবি পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্পে দুর্নীতির তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। সে প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ নিয়ে বিশ্ব ব্যাংক কানাডার আদালতে মামলা করে হেরে যায় বলে মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “টিআইবিসহ বিভিন্ন সংস্থা পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির কল্পকাহিনি সাজিয়েছিল। তাদের উচিৎ ছিল জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়া। এ ধরনের মনগড়া প্রতিবেদন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত প্রতিবেদন প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকা। যেটি তারা করেনি।”

বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সব সাধারণ নির্বাচনের মধ্যে ৩০ ডিসেম্বরের ভোট ‘অপেক্ষাকৃত অনেক শান্তিপূর্ণ’ হয়েছে বলেও দাবি করেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, “এ নির্বাচন দেশে বিদেশে সর্বক্ষেত্রে প্রশংসিত হয়েছে। যারা আমাদের দেশে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য এসেছিলেন তারা এ নির্বাচনের প্রশংসা করেছেন।”

পৃথিবীর বিভিন্ন রাষ্ট্র নির্বাচনের পর বিজয়ী দল আওয়ামী লীগ এবং দলের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যে অভিনন্দন জানিয়েছেন, সে কথাও তথ্যমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে বলেন।  

এক আসনে বিএনপির একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টি তুলে ধরে হাছান মাহমুদ বলেন, “আপনারা জানেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে কোনো রাজনৈতিক দল ৩০০ আসনে ৮০০ মনোনয়ন দেয়নি। বিএনপি লজ্জাকরভাবে মনোনয়ন বাণিজ্যের মাধ্যমে ৮০০ প্রার্থীকে ৩০০ আসনে মনোয়ন দিয়েছে।”

এ বিষয়ে টিআইবির প্রতিবেদনে কিছু না থাকায় প্রশ্ন তোলেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, নির্বাচন যে ‘অপেক্ষকৃত শান্তিপূর্ণ’ হয়েছে, এবং ভোট ঘিরে আওয়ামী লীগের ২২ নেতাকর্মী যে নিহত হয়েছেন, সে কথাও টিআইবি বলেনি।

হাছান মাহমুদ বলেন, “এগুলোতে স্পষ্ট প্রমাণিত হয়, টিআইবির এ প্রতিবেদন হচ্ছে একপেশে, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত এবং পরাজিত পক্ষকে কথা বলার সুযোগ করে দেওয়ার প্রতিবেদন ছাড়া অন্য কিছু নয় “

সংবাদ সম্মেলনে টিআইবিকে ‘রাজনৈতিক ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন না করে’ দেশের স্বার্থে কাজ করার আহ্বান জানান তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।