নির্বাচন স্থগিত করুন, আদালত বন্ধ রাখুন: বিএনপি

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-20 01:58:11 BdST

bdnews24

দেশে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনসহ পাঁচ উপ-নির্বাচন আপাতত স্থগিতের দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

একই সঙ্গে দেশের আদালতগুলোও ‘যতদিন প্রয়োজন হয়’, ততদিন বন্ধ রাখার দাবি দাবি জানিয়েছে দলটি।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পর সার্বিক পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে বৃহস্পতিবার এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের এই দাবি জানান।

তিনি বলেন,  “করোনাভাইরাসের আতঙ্কের কারণে জনগণের কাছ থেকে, বিভিন্ন জায়গা থেকে ইতিমধ্যে নির্বাচন বন্ধ করার কথা এসেছে। নির্বাচন কমিশন বলছে যে, ২১ তারিখে যে নির্বাচনগুলো আছে তা হবেই এবং ২৯ তারিখের নির্বাচনের ব্যাপারে ২১ তারিখ সিদ্ধান্ত নেবে।

“আমরা এটাকে একেবারেই একটা একপেশে সিদ্ধান্ত মনে করি। আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে আহবান জানাচ্ছি যে, তারা যেন জনগণের স্বার্থে, মানুষের বেঁচে থাকার স্বার্থে এই নির্বাচনগুলোকে স্থগিত রাখেন।”

আদালত নিয়ে ফখরুল বলেন, “আমাদের আদালতগুলোতে ব্যাপক সংখ্যক মানুষের ভিড় হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মিথ্যা মামলায় যারা আসামিদের তাদের আসতে হয়, হাজিরা দিতে হয়।

“আমি যে রিপোর্টটা পেয়েছি যে, ৩০ জন বিচারক ইতিমধ্যে কোয়ারেনটিনে চলে গেছেন। আমরা সেই কারণে আহবান জানাচ্ছি, এই পরিস্থিতি বিবেচনা করে আদালতগুলো আপাতত কিছু দিন বন্ধ রাখা প্রয়োজন। আমরা আশা করব, সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা দেশের কথা চিন্তা করে, জনগণের কথা চিন্তা করে এই সিদ্ধান্ত নেবেন।”

বিএনপি মহাসচিব সরকারের সমালোচনা করে বলেন, “আমরা লক্ষ্য করেছি, প্রথম থেকেই সরকার এই করোনাভাইরাসের বিষয়টি গুরুত্ব দেয়নি। আমরা বলেছিলাম, স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করুন। তারা বন্ধ করেননি। পরে ১৬ তারিখে তারা স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে।

“আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন যে, প্রয়োজন হলে সব শাটটডাউন করা হবে, যা যা দরকার সব বন্ধ করা হবে। এখন তো শাটডাউন করার জায়গাটা অলরেডি এসে গেছে।”

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব। 

এই রোগ চিকিৎসায় বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্ধারণ, চিকিৎসক-নার্সদের প্রয়োজনীয় পোশাক (পিপিই) ও যন্ত্রপাতির ব্যবস্থা করার দাবিও জানান তিনি।

গুলশানে দলীয় চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান ও  ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।