এই সঙ্কট একসঙ্গে মোকাবেলার প্রত্যয় রাদওয়ানের

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-21 22:50:41 BdST

bdnews24
গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’ হাতে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক (ফাইল ছবি)

জনগণের সঙ্গে থেকে একযোগে করোনাভাইরাস সঙ্কট কাটিয়ে ওঠার প্রত্যয় জানিয়েছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক।

সঙ্কটকালে আসা জন্মদিনে তাকে শুভেচ্ছা জানানোয় সবাইকে ধন্যবাদ দিয়ে এই প্রত্যয় জানান আওয়ামী লীগের গবেষণা সংস্থা সিআরআইয়ের ট্রাস্টি রাদওয়ান।

বৃহস্পতিবার এক ফেইসবুক পোস্টে জন্মদিনের কেকের ছবি দিয়ে তিনি লিখেছেন, “আপনাদের উষ্ণ ও দারুণ সব আশির্বাদের মাধ্যমে এই অস্বাভাবিক জন্মদিনকে উজ্জ্বলতর করায় সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

“দিনটি আমি আমার পরিবারের সঙ্গে কাটালাম। মাথা থেকে মহামারী সংক্রান্ত চিন্তা দূরে রাখার চেষ্টা করছি, কিন্তু এই পরিস্থিতিতে তা ঝেড়ে ফেলা কঠিন। যা-ই হোক, আমরা সবাই একসঙ্গে এ থেকে বেরিয়ে আসব।”

করোনাভাইরাস সঙ্কট কাটলেও সামনে যে বড় চ্যালেঞ্জ রয়েছে দেশের জন্য, তা উৎরাতে নিজের ভূমিকা রাখার কথাও বলেন বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র।

“নিঃসন্দেহে আগামী বছর চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে আমি আশা করছি, আরও পরিণত ও অভিজ্ঞ (হয়ত) হয়ে উঠব, যা কাজে লাগবে!”

বৃহস্পতিবার রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববির ৪০ বছর পূর্ণ হওয়ায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতাদের পাশাপাশি সিআরআই কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার বহু মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানায়।

 

বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানা ও অধ্যাপক শফিক আহমেদ সিদ্দিকের তিন সন্তানের মধ্যে বড় রাদওয়ানের জন্ম ১৯৮০ সালের ২১ মে।

রাদওয়ানের বোন টিউলিপ সিদ্দিক লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসন থেকে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য। তাদের বাবা শফিক আহমেদ সিদ্দিক দেশ-বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন, পড়িয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েও।

রাদওয়ান বিভিন্ন স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থায় স্ট্র্যাটেজি ও যোগাযোগ বিষয়ক পরামর্শক হিসেবে কাজ করেন।

লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স অ্যান্ড পলিটিক্যাল সায়েন্স থেকে গভর্নেন্স অ্যান্ড হিস্ট্রি বিষয়ে স্নাতক রাদওয়ান একই প্রতিষ্ঠান থেকে কমপ্যারেটিভ পলিটিক্স বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন।

রাদওয়ান গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিআরআইয়ের ট্রাস্টি হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি দেখভাল করেন। সিআরআইয়ের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইয়ং বাংলার মাধ্যমে তরুণদের ক্ষমতায়ন ও উদ্বুদ্ধকরণের কাজ করছেন তিনি।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‍জীবনী গ্রাফিক্যাল উপস্থাপনার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ‘গ্রাফিক নভেল মুজিব’ প্রকাশের প্রধান কারিগর ও প্রকাশক রাদওয়ান।

বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী প্রকাশের পর শিশু-কিশোর ও তরুণদের কাছে তার ঘটনাবহুল জীবন নতুন রূপে তুলে ধরার জন্য বইটিকে গ্রাফিক নভেলে রূপ দেওয়ার উদ্যোগ নেন তিনি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিখ্যাত ব্যক্তিদের নিয়ে গ্রাফিক নভেল হলেও বাংলাদেশে এ ধরনের উদ্যোগ এটাই প্রথম।

একইসঙ্গে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার দুই মেয়ে কীভাবে জীবনসংগ্রাম করেছেন সেসব ঘটনা নিয়ে ডকুড্রামা ‘হাসিনা: অ্যা ডটার টেইল’ নির্মাণের নেপথ্যে ছিলেন রাদওয়ান। এর মাধ্যমে রাজনৈতিক ইতিহাসের ঘটনাবলী সামনে আনার প্রকল্পগুলোর পৃষ্ঠপোষকতা করছেন তিনি।