‘শূন্য ভাণ্ডার পূরণ করতে’ ভুতুড়ে বিল আদায়: রিজভী

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-06-22 17:20:28 BdST

bdnews24

সরকার ‘শূন্য ভাণ্ডার’ পূরণ করতে জনগণের কাছ থেকে বিদ্যুৎ-গ্যাসের ‘ভুতুড়ে বিল’আদায় করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী।

সোমবার এক ভার্চুয়াল সংবাদ ব্রিফিংয়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রিজভী বলেন, “সরকার তাদের সৃষ্ট শূন্য ভাণ্ডার পূরণ করতে মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে নিম্নআয়ের মানুষের গলায় ছুরি বসিয়ে টাকা আদায় করছে। এর একটি হচ্ছে বিদ্যুৎ-গ্যাসের বিল। অবিশ্বাস্য ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল দেশবাসীর ঘাড়ে চাপিয়ে দিচ্ছে।”

বিদ্যুতের বিল জুন মাসের মধ্যে পরিশোধ করা না হলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ‘হুমকি’ দেওয়া হচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, “বিদ্যুৎ-গ্যাসের অস্বাভাবিক বিল আদায়ে দুর্নীতি সংশ্লিষ্ট একটি অমানবিক দুষ্টচক্র কাজ করছে।”

রিজভীর ভাষায়, “করোনাভাইরাস যেমন মানুষের নিঃশ্বাস বন্ধ করে দেয়, ঠিক তেমনিভাবে সরকারও জনগণের শ্বাস চেপে ধরেছে। তারা এতটাই নির্বিকার ও বেপরোয়া যে হরিলুট হওয়া সরকারি অর্থের ঘাটতি পূরণে মানুষের শরীর থেকে রক্ত টেনে নিচ্ছে।”

এই সঙ্কটের মধ্যে ভাড়াটিয়ারাও ‘আতঙ্কে আছে’ মন্তব্য করে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, “আমরা বেশ কয়েকজন মানবিক বাড়িওয়ালাকে দেখেছি যারা ভাড়াটিয়াদের বাড়ি ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছেন। আবার অনেক বাড়িওয়ালা ভাড়াটিয়াদের সাথে করছে নির্দয় আচরণ। সরকার বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বৃদ্ধির কথা বলে, বাড়িওয়ালারাও ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে নানাভাবে মাশুল আদায় করছে অন্যায়ভাবে।”

ক্ষুদঋণের গ্রাহকদের সুদ স্থগিতের ঘোষণা দেওয়া হলেও ‘নির্দয়ভাবে’ কিস্তি আদায় করা হচ্ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, “তারা দেউলিয়া হওয়া অর্থনীতি সচল রাখার জন্য স্বল্প আয়ের মানুষদের মাটির সাথে মিশিয়ে দিচ্ছে।”

নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই ভার্চুয়ার ব্রিফিং হয়।