সাহেদ ও জেকেজির বিরুদ্ধে সরকারই ব্যবস্থা নিয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-14 01:12:29 BdST

bdnews24
তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ (ফাইল ছবি)

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, জেকেজি ও মোহাম্মদ সাহেদের দুর্নীতি ও প্রতারণা সরকারই উদ্ঘাটন করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে।

সমালোচনার জবাবে সোমবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি একথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, “দুটি ঘটনার কোনোটিই পত্রিকার রিপোর্ট বা অন্য কেউ অভিযোগের আঙ্গুল তোলার পরে নয়, সরকার খতিয়ে দেখার পরই এই অনিয়মগুলো উঠে এসেছে।

“নানাজনে নানা বক্তব্য দিচ্ছেন, বিএনপিও মুখ খুলছে। কিন্তু এগুলো সরকারই উদ্ঘাটন করেছে।”

তিনি বলেন, “জেকেজির প্রধান নির্বাহী এবং চেয়ারম্যান দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সাহেদের দুটি হাসপাতাল সিলগালা করা হয়েছে।

“তবে আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এদেরকে এ বিষয়ে (কোভিড চিকিৎসা ও নমুনা পরীক্ষা) যুক্ত করার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আরও সতর্ক হওয়ার অবশ্যই প্রয়োজন ছিল।”

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকারের নানা পদক্ষেপ তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, “এক্ষেত্রে যা যা করা প্রয়োজন, সবকিছুই সরকার শুরু থেকেই করে এসেছে। মানুষের সুরক্ষায় সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়ে চেষ্টা করা হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দিনরাত কাজ করে এই করোনাভাইরাস মোকাবিলা করে দেশের অর্থনীতিকে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষার চেষ্টা করছেন।”

অনলাইন গণমাধ্যমের নিবন্ধন দেওয়া নিয়েও কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে তা স্থগিত হলেও শিগগির তা শুরু হবে।

“সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আমরা শিগগিরই রেজিস্ট্রেশন দেব। আর যেগুলোর বিষয়ে নেতিবাচক প্রতিবেদন এসেছে, সেগুলোর ব্যাপারেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

সাহেদের সংবাদপত্রের বিষয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, “সাহেদ পত্রিকার ডিক্লারেশন নিলেও সেই পত্রিকা বের করেছে কি না, সেটি ডিএফপি (চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর) খতিয়ে দেখছে।

“এক্ষেত্রে যদি কোনো অনিয়ম হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখানে আমি মনে করি, একজন প্রতারকের হাতে পত্রিকার ডিক্লারেশন থাকবে কি না, সেটি বিবেচনায় নেয়া জরুরি।”