পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

শ্লোগান নয়, আন্দোলনের প্রস্তুতি নিন: গয়েশ্বর

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-18 15:20:39 BdST

bdnews24

খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য শ্লোগান নয়, আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে বললেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

শুক্রবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি এই আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, “আমাদের অনুপ্রেরণা যে মূল নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া তাকে মুক্ত করতে হবে, তিনি মুক্ত নন। তাকে মুক্ত করতে পারলেই আমরা সবাই মুক্ত হব। আমাদের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যিনি নেতৃত্ব দিচ্ছেন, সেই দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও মুক্ত হবেন এবং দেশে আসবেন।

“সেই কাজটা আমাদেরকেই করতে হবে। আন্দোলনে করতে হবে, রাস্তায় নামতে হবে। শ্লোগান দিয়ে হবে না। আমাদের যেটা করা দরকার, সেটা করতে হবে।”

গয়েশ্বর বলেন, “আমরা সকলে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে গেছি। সেখান থেকে আমাদের মুক্তি তখনই আসবে, যখন দেশনেত্রী বন্দিদশা থেকে মুক্ত হয়ে ডাক দেবেন যে, আমি খালেদা জিয়া বলছি। তখন কোনো রাজনৈতিক নেতা-কর্মীর কমিটমেন্ট কিছু থাকবে না।

“সেই কমিটেড লোকজনের ঘরে বসে আলোচনা করলে চলবে না। আমাদের অত্যন্ত জরুরি খালেদা জিয়ার মুক্তির। তিনি মুক্ত হলে গণতন্ত্র মুক্তি পাবে এবং গণতন্ত্রের মুক্তি হলে কিন্তু খালেদা জিয়া মুক্তি পায়। সুতরাং গণতন্ত্রের মুক্তির আন্দোলন আর খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন একই সূত্রে গাঁধা। সেই নামে বলেন একই কর্ম।”

২০০৭ সালের এক-এগারোর ঘটনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, “ময়মনসিংহের এক ছোট্ট শিশু তার বাবা-মায়ের সাথে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একটা ছোট ব্যানার নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকল। সেই ব্যানারে লেখা ছিল-খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই। যখন এই কথাটি বলতে বা উচ্চারণ করতে কেউ সাহস করে নাই, তখন এই শিশুটি এই কথাটি নিজের গলায় ঝুলিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে থাকল, এক ঘণ্টা সে দাঁড়িয়ে থেকেছে।

“ওই ছোট্ট শিশু তার প্রতিবাদটা কঠিনভাবে করেছে। প্রতিবাদের ভাষায় কণ্ঠের জোর খুব বেশি দরকার হয় না। প্রকাশের মধ্যে আন্তরিকতার ছোঁয়া আছে কিনা সেটা দেখতে হবে। তাই বলব, মনের জোর নিয়ে আমাদের এক হতে হবে।”

জাতীয়তাবাদী নবীন দলের উদ্যোগে আবদুস সালাম হলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য জয়নুল আবদিন ফারুকের আশু রোগমুক্তি কামনায় আলোচনা ও দোয়া মাহফিল হয়।

এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়া চিকিৎসাধীন আছেন দীর্ঘ দেড় মাসের অধিক সময়। তিনদিন আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন সাবেক বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক।

সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন আহমেদ তালুকদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নবীন দলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সোহেল রানা, আবুল কালাম আজাদ, আব্দুল হান্নান লিটন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।