পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

সাম্প্রদায়িক ‘অপশক্তি’ উপড়ে ফেলতে হবে: কাদের

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-10-18 19:36:12 BdST

পঁচাত্তরের পর থেকে বিএনপি দেশে সাম্প্রদায়িক রাজনীতির ধারা ‘বয়ে বেড়াচ্ছে’ দাবি করে এমন ‘অপশক্তিকে’ উপড়ে ফেলার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সোমবার রাজধানীর বনানীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মবার্ষিকীতে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে তিনি এমন আহ্বান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “দেশে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি মাথাচারা দিয়ে উঠেছে। আজকে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বাঁচাতে হবে। এজন্য সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পরাজিত করতে হবে।”

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার ঘটনা স্মরণ করে তিনি বলেন, “পৃথিবীর ইতিহাসে কোনো রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডে এত নৃশংস ঘটনা ঘটেনি। মানবসভ্যতার ইতিহাসে নৃশংসতম হত্যাকাণ্ড ৭৫ এর ১৫ অগাস্ট।

“যে হত্যাকাণ্ডেরর লক্ষ্য হয়েছিল রাসেলের মতো অবুঝ শিশু, অন্তঃসত্ত্বা নারী। পৃথিবীর ইতিহাসে কোনো হত্যাকাণ্ডে অবুঝ শিশু টার্গেট হয়নি। অথচ পঁচাত্তরের হত্যাকাণ্ডে যে ছিল সম্ভাবনার, মেধা ও বিনয়ের, যার মধ্যে ছিল ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের ছাপ;সেই রাসেলকেও জীবন দিতে হয়েছিল।”

ওবায়দুল কাদের বলেন, “৭৫ সাল থেকে এই দেশে হত্যা, ষড়যন্ত্র ও সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতির যে ধারা, সেই ধারার উত্তরাধিকার এখনও বয়ে চলছে বাংলাদেশের একটি রাজনৈতিক দল বিএনপি।

হত্যা, ষড়যন্ত্র আর সাম্প্রদায়িক রাজনীতির কারণে গণতন্ত্রের বিকাশ বারবার ব্যাহত হচ্ছে মন্তব্য করে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে মোকাবিলা করার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, “এই দিনে শপথ হোক বাংলাদেশের অর্জন উন্নয়ন, মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে যে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এবং এদের বিষবৃক্ষ ডালপালা বিস্তার করেছে, এটা উপড়ে ফেলতে হবে।”

কুমিল্লার ঘটনায় ‘পরিকল্পিতভাবে’ একটি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী ‘বিএনপির পৃষ্ঠপোষকতায়’ সারাদেশে তাণ্ডব চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

তিনি বলেন, “রংপুরে একটি জেলেপাড়ায় আগুন দিয়ে মন্দিরে হামলা করেছে, গবাদিপশুর প্রাণহানি হয়েছে। এরকম নৃশংস ঘটনা ঘটাচ্ছে, হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে। ফেইসবুকে আজকে অপপ্রচার করছে। এই অপপ্রচার থেকে রংপুরের ঘটনা ঘটেছে।

“প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাত থেকে খোঁজখবর নিচ্ছেন এবং দল থেকেও সতর্ক থাকতে হবে। আজকে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হবে। এ জন্য সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পরাজিত করতে হবে।”

গত ১৩ অক্টোবর দুর্গাপূজার অষ্টমীতে কুমিল্লার একটি মন্দিরে কথিত ‘কোরআন অবমাননার’ অভিযোগ তুলে কয়েকটি মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর চালানো হয়। এরপর গত কয়েক দিনে দেশের বিভিন্ন জেলায় হিন্দুদের ঘরবাড়ি-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও উপাসনালয় সাম্প্রদায়িক হামলর শিকার হয়েছে।

এসব ঘটনা ‘সরকার ঘটাচ্ছে’ বলে যে অভিযোগ বিএনপি নেতারা করছেন- সে বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, “বিএনপিতো হিন্দুদের বাড়িঘর পাহারা দেওয়ার জন্যর নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ করেছে। ওদেরকে পাহারায় দেওয়া মানেই শিয়ালের কাছে মুরগি বর্গা দেওয়া।”

শেখ রাসেলের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানোর সময় অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্যে মতিয়া চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সম্পাদক দীপু মনি, হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, প্রচার সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান উপস্থিত ছিলেন।

যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে আলাদাভাবে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

 

আরও পড়ুন

রাতের তাণ্ডবের পর রংপুরের মাঝিপাড়ায় আতঙ্ক  

৯ বছরে হিন্দুদের উপর ‘৩৬৭৯ হামলা’  

তিন দিনে ৭০ পূজামণ্ডপে হামলা: ঐক্য পরিষদ