পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে ‘চাঁদাবাজি’, সবুজবাগের ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-05-19 13:30:36 BdST

bdnews24
মো. সাঈদী হোসেন। ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে রাজধানীতে এক ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকার সবুজবাগ এলাকা থেকে মো. সাঈদী হোসেন নামের ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয় বলে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান।

তিনি বলেন, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে সে চাঁদাবাজি এবং সন্ত্রাসী চালিয়ে আসছিল। র‌্যাব-৩ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তার কাছে অস্ত্র, গুলি ও মাদক পাওয়া গেছে।”

সাঈদী হোসেন এক সময় সবুজবাগ থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। ‘চাঁদাবাজি, মাদক সম্পৃক্ততা ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের’ কারণে ২০১৯ সালে তাকে ওই পদ থেকে বাদ দেওয়া হয়।

এরপর ২০২১ সালের মাঝামাঝি সময়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত একটি চিঠি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসে, সেখানে সাঈদী হোসেনকে মহানগর দক্ষিণের সহ সভাপতির পদ দেওয়ার কথা বলা হয়। তখন থেকে ওই পরিচয়েই কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিলেন তিনি।  

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানান, ভোররাতে র‌্যাব সাঈদীকে গ্রেপ্তার করতে গেলে কয়েকশ নেতাকর্মীকে সঙ্গে নিয়ে র‌্যাবের গাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের আহমেদ। পরে র‌্যাবের সঙ্গে পুলিশ সদস্যরা যুক্ত হলে ছাত্রলীগ কর্মীরা পিছু হটে।

মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের এক নেতা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সাঈদীকে দক্ষিণের সহ সভাপতির পদ জোবায়েরই দিয়েছেন। তিনি র‌্যাবের কাছ থেকে সাঈদীকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। তখন তাকেও আটক করা হয়।”

তবে র‌্যাব মুখপাত্র খন্দকার আল মঈন জুবায়েরকে আটকের বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি। জোবায়েরের একটি মোবাইল নম্বর সকাল থেকে বন্ধ পাওয়া যায়। আরেকটি নম্বর সচল থাকলেও কেউ ফোন ধরেননি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সাঈদী সহ-সভাপতি হয়েছেন এমন একটি চিঠি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েছে। তবে আমি ওই চিঠি সম্পর্কে অবগত নই। সেটা জানিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ বরাবর চিঠি দিয়েছি গত বছর সেপ্টেম্বরে, যাতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তিনি কীভাবে দলীয় পরিচয় দেন সেটা আমার জানা নেই।”