নুসরাতের খুনিদের শাস্তির দাবিতে নিউ ইয়র্কে সমাবেশ

  • নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-04-22 20:51:16 BdST

ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফী হত্যার প্রতিবাদ এবং যৌন নির্যাতন ও আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার সাথে জড়িত সকলের দ্রুত বিচার আদালতে কঠোর শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে।

রোববার বিকালে নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় যুক্তরাষ্ট্র মহিলা পরিষদ ও প্রোগ্রেসিভ ফোরাম এর যৌথ উদ্যোগে ওই মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এই সমাবেশে বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা নুসরাতের বর্বর ও নৃশংস হত্যাকাণ্ডসহ সম্প্রতি ধারাবাহিকভাবে নারী নির্যাতন ও হত্যার বিরুদ্ধে গভীর ক্ষোভ ও সমবেদনা প্রকাশ করে এসব ‘নরপশু’দের কঠোর ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মহিলা পরিষদের সভাপতি শামসাদ হুসাম বলেন, “মাদ্রাসা হচ্ছে ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণের এক পবিত্র স্থান। সেখানে শিক্ষকরা পিতৃতুল্য। সেই সব শিক্ষক ও প্রিন্সিপালরা যদি ছাত্রীদের শ্লিলতাহানির মতো জঘন্য কাজ করে তাহলে ছাত্রীরা কোথায় নিরাপদ ?”

তিনি আরও বলেন, “আর যেভাবে শাসক দলের ইউনিয়ন ও উপজেলার নেতারা এবং থানার ওসি, জেলার পুলিশ সুপার পর্যন্ত মামলার এজাহার নিতে অস্বীকার করে উল্টো পরিবারকেই দোষারোপ করার জন্য বার বার চেষ্টা করেছে, সেক্ষেত্রে এসব ওসি বা এস পির কাছ থেকে জনগণ কীভাবে নিরাপত্তা প্রত্যাশা করতে পারে ? ”

প্রোগ্রেসিভ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আলীম উদ্দিন বলেন,  “এ পর্যন্ত যেহেতু খুব কমসংখ্যক ধর্ষণ ও হত্যারই বিচার হয়েছে তাই খুনি ও নির্যাতনকারীরা ক্রমশ বেপরোয়া হয়ে উঠছে। আর শাসক দলের আশ্রয়ে প্রশ্রয়ে থাকলে কেউ কিছু করতে পারেনা তাই সমাজ বিরোধী দুর্বৃত্তরা সব সময়ই ক্ষমতাশীন দলের ভিতরে ঢুকে পড়ে।“

“নির্বাচনের দিন থেকে সংখ্যালঘু নারীদের উপর অত্যাচার শুরু হয়েছে এবং এখন ছোট্ট কন্যাশিশুরাও এ থেকে রক্ষা পাচ্ছেনা। প্রশাসনের,পুলিসের এবং ক্ষমতাসীন দলের সহযোগিতা না পেলে এভাবে সারা দেশে এধরনের অন্যায় করতে পারবেনা। “

 বক্তারা বলেন, প্রধান মন্ত্রী প্রতিটি ক্ষেত্রে যদিও সমাধানের হাত বাড়িয়ে দিতে সচেষ্ট হন, কিন্তু এক ব্যক্তির পক্ষে কখনো কী সারাদেশের সব সমাধান করা সম্ভব ? তাই দেশে আইনের শাসন তথা সুশাসন চালুর জোর দাবি জানান তারা।

প্রশাসনে অন্যায়কারীদের শুধু বদলি না করে অন্যায় কাজের জন্য কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার প্রয়োজন বলে অভিমত সমাবেশের বক্তাদের।

এই সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ফোরাম সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খোরশেদুল ইসলাম।

আরও বক্তব্য দেন জাসদ সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম জিকো,  উদীচীর সহ সভাপতি ও বিশিষ্ট শিল্পী সফি চৌধুরী হারুন,মুক্তিযোদ্ধা কাশেম আলী, নারী ম্যাগাজিনের সম্পাদক পপি চৌধুরী, কুলাউড়া সমিতির উপদেষ্টা মুকিত চৌধুরী,সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন,আবৃত্তিকার গোপন সাহা, সাংবাদিক নিনি ওয়াহেদ, আইনজীবি নেতা এডভোকেট শেখ আখতারুল ইসলাম,   যুবনেতা রেজাউল বারী, মহিলা পরিষদ নেত্রী লিপি সাহা, ফোরাম নেতা জাকির হোসেন বাচ্চু, মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুলেখা পাল, কবি এবিএম সালেহ উদ্দিন এবং ফোরাম নেতা মোহাম্মদ হারুন।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!