২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

সুইজারল্যান্ডের লুজানে প্রবাসীদের ঈদ পুনর্মিলনী

  • সুইজারল্যান্ড প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-06-13 17:31:07 BdST

bdnews24

ঈদের আনন্দ সবার মাঝে ভাগাভাগি করে নিতে সুইজারল্যান্ডের লুজান প্রবাসী বাঙালিরা আয়োজন করেছিলেন ঈদ পুনর্মিলনী  ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

স্থানীয় সময় রোববার একটি কমিউনিটি সেন্টারে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে ঈদ পুনর্মিলনী তথা বাঙালির মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়। সুইজারল্যান্ডে বসবাসকারী বিপুল সংখ্যক প্রবাসীরা এতে অংশ নেন।

ঈদের আনন্দকে ভাগাভাগি করে নিতে এবং সকল হিংসা বিদ্বেষ ভুলে গিয়ে প্রবাসে সবাই যেন মিলেমিশে থাকতে পারে, সে জন্যই তারা এ মিলনমেলার আয়োজন করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন, ইসমাইল হোসেন কাউছার ও শর্মী আক্তার ।

আয়োজন এবং পৃষ্ঠপোষকতার মধ্যে ছিলেন কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আব্দুল আজিজ মিয়া, মেজবাহ উদ্দিন নিপন, নজরুল ইসলাম, মাহবুল হক, কামাল মজুমদার, খোরশেদ আলম, আবু আলম তৈয়ব, মৌলভী গোলাম মোস্তফা, জহির ঢালী, মো. আবু নাইম, আব্দুল হক মোল্লা, চৌধুরী মনির, মজিবুর রহমান কিরন, টিটু  ইসলামসহ আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খান ও প্রাক্তন সভাপতি হারুন রশিদ বেপারী এবং বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন সুইজারল্যান্ড শাখার সভাপতি গোলাম মোরশেদ সাচ্চু এবং সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম এগার।

সুইস-বাংলাদেশ ইউনাইটেড কমিউনিটির সভাপতি শেখ আনোয়ার, সাধারণ সম্পাদক জিকু বাদল এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান অসীমসহ আরো অনেকেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

শুরুতেই সাংস্কৃতিক পর্বে  স্থানীয় প্রবাসী শিল্পীদের মধ্যে সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন জেনেভা , লুজান, জুরিখ ও অন্যান্য শহরের  শিল্পীরা।

বাংলাদেশ থেকে আগত কণ্ঠশিল্পী কাজী শুভ এবং মিতুয়া হিমা অনুষ্ঠানে গান গেয়েছেন।

ঈদ পুনর্মিলনী উৎসবে দেশিয় খাবার ও ঐতিহ্যবাহী পোশাকের মেলা সাজিয়ে বসেন প্রবাসী বাঙালিরা । এ ধরনের উৎসব প্রবাসে দেশীয় ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতি তুলে ধরতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে জানান আয়োজকরা ।

অনুষ্ঠানটির চলচ্চিত্র, স্থিরচিত্র ও আলোর নিয়ন্ত্রণ করেন নিজাম উদ্দিন এবং সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন সৈয়দ গোলাম কামরুজ্জামান ।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!