মালদ্বীপের ভাধু আইল্যান্ড

  • রনি নন্দী, মালদ্বীপের মালে থেকে, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-06-17 15:28:47 BdST

নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ভাধু আইল্যান্ড মালদ্বীপের বিস্ময়কর এক সমুদ্র সৈকত। প্রবাল প্রাচীর ঘেরা এ দ্বীপের বৈশিষ্ট্য সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গে ঢেউয়ের সঙ্গে ভেসে আসে যেন লক্ষ লক্ষ তারা।

দ্বীপরাজ্য মালদ্বীপ ২৬টি অ্যাটোল আর প্রায় ১ হাজারটি ক্ষুদ্র দ্বীপ নিয়ে ভারতীয় মহাসাগরের দেশ। অ্যাটোল মানে লেগুন ঘেরা প্রবালদ্বীপ। এর মধ্যে মাত্র দুইশত দ্বীপ বাসযোগ্য। বাকিগুলো অব্যবহৃত অবস্থায় আছে। মালদ্বীপের রাজধানী মালে, এটি বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহরগুলির মধ্যে একটি। মাত্র ৯.২৭ বর্গকিলোমিটারের এ শহরে প্রায় ১ লাখ ৩৩ হাজার ৪১২ জন মানুষের বসবাস। মালদ্বীপের মোট জনসংখ্যা ৪ লাখ ছয়ত্রিশ হাজার ৩৩০ জন।

প্রকৃতি তার অপরূপ রূপ যেন ঢেলে দিয়েছে এ মালদ্বীপে। বিশাল সমুদ্র, নীল আকাশ আর প্রবাল দ্বীপ। দ্বীপে দ্বীপে অসাধারণ সব সমুদ্র সৈকত। ভাধু আইল্যান্ড সেসব দ্বীপের মধ্যে অন্যতম।

ভাধু মালে থেকে ১৯৪ কিলোমিটার দূরে রা অ্যাটোলে অবস্থিত। ১.৪ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যে আর প্রস্থে ০.৪ কিলোমিটার এ দ্বীপে লোকসংখ্যা ৫৫০ জন, অভিবাসীসহ। অকল্পনীয় প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের নিদর্শন এই ভাধু দ্বীপের রাতগুলো যেন অপেক্ষা করে আরও অনেক বিস্ময় নিয়ে। রাতের বেলা যখন ভাধু দ্বীপের তীরে আছড়ে পড়ে সাগরের ঢেউ, তখন মনে হয় যেন আয়নার মতো স্বচ্ছ জলে প্রতিফলিত হচ্ছে রাতের আকাশের অসংখ্য উজ্জ্বল তারা।

আবার কখনো কখনো মনে হয় বুঝি আকাশের তারাগুলো সব নেমে এসেছে ভাধু দ্বীপের তীরে। সৈকতে যেন ঐশ্বরিক তারাবাতি জ্বালিয়ে দিয়েছে কেউ। মনে হয় প্রকৃতি সৈকতকে সাজিয়ে দিয়েছে লক্ষ তারায়। মিটিমিট নীল আলোয় তাক লাগানো এক বিস্ময়কর সুন্দর এই ভাদু দ্বীপ। এ উজ্জ্বল নীল আলো আর কিছুর নয়, এক ধরণের সামুদ্রিক ফাইটোপ্লাঙ্কটনের। ফাইটোপ্লাঙ্কটনের নাম ডিনোফ্লাজেলাটিস। এসব ফাইটোপ্লাঙ্কটনে রয়েছে লুসিফেরাস নামক রাসায়নিক উপাদান যা আলো সৃষ্টি করতে পারে। জোনাকি, জেলিফিসের মতো অনেক জীবেরই আছে আলো তৈরির করার ক্ষমতা। জীবের আলো তৈরি করার এই ক্ষমতাকে বলে Bioluminescence।

এটা অবশ্যই প্রকৃতির এক আশ্চর্য ঘটনা। সাধারণত নিজেদের আত্মরক্ষা, শিকার ধরা, আক্রমনকারী প্রাণিকে বিভ্রান্ত করা জন্য এসব ফাইটো প্লাঙ্কটন আলো বিচ্ছুরণ করে। এ ফাইটোপ্ল্যাঙ্কটগুলো নিজের উৎপাদিত নীল রঙের আলো বিকিরণ করে নীল আলোর ফিনকি ছড়িয়ে বিশ্বের অন্যতম সুন্দর ও অসাধারণ প্রাকৃতিক আলোর খেলার নিদর্শন তৈরি করে চলেছে।

হাজার বছর ধরে রাতের আলো আঁধারিতে মালদ্বীপের ভাধু দ্বীপের তীর। মালদ্বীপের ভাধু দ্বীপ ইউরোপ-আমেরিকাসহ এশিয়ার ভ্রমণপিপাসুদের জন্য এক স্বর্গরাজ্য।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!