২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

জর্জিয়ায় বাংলাদেশ সমিতির বনভোজন

  • রুমী কবির, জর্জিয়া প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-07-19 13:22:53 BdST

যুক্তরাষ্ট্রের গ্রীষ্মের উত্তাপ আর বাংলাদেশিদের প্রাণের উত্তাপ একীভূত হয়ে প্রাণোচ্ছল বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত হলো জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে প্রবাসী সঙ্গঠন ‘বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়ার’ উদ্যোগে।

রোববার মেট্রো আটলান্টার নরক্রস শহরের জোনস ব্রিজ স্ট্রেট পার্কে এ বনভোজনটির আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় সময় দুপুর বারোটা থেকে শুরু হয়ে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত অসংখ্য বাংলাদেশি শিশু-কিশোর ও নারী-পুরুষের পদচারণায় সারাক্ষণই প্রাণচঞ্চল ছিল সবুজে ঘেরা নৈসর্গিক সৌন্দর্যের পার্ক চত্বরটি।

বনভোজন চত্বরে প্রবেশ করার পর থেকেই সংগঠনের সদস্যসহ জর্জিয়া রাজ্যের প্রবাসী বাংলাদেশিরা একে অপরের কুশল বিনিময় ও প্রাণখোলা জমপেশ আড্ডায় সময় অতিবাহিত করেছেন দিনভর। এছাড়া বনভোজনে বেশ কয়েকটি খেলাধুলার আয়োজন করা হয়।

শিশু-কিশোরদের দৌড় প্রতিযোগিতাটি অভিভাবকদের মধ্যেও উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি করে। সব চাইতে বেশি চিত্তাকর্ষক পর্বটি ছিল নারীদের মিউজিক্যাল চেয়ার প্রতিযোগিতার সময়। এসময় বাজনার তালে তালে একটি বল পার্শ্ববর্তী প্রতিযোগীর কাছে নিক্ষেপের মাধ্যমে সবার হাত বদল হচ্ছিল টান টান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে। প্রতিটি খেলাতেই বিজয়ীদেরকে পুরস্কৃত করা হয়।

আনন্দ হৈচৈ, ছোটাছুটি, লেকের পানিতে গোসল ও মাছ ধরার পর্ব শেষ হবার পর আয়োজক সংগঠনের তত্ত্বাবধানে সুস্বাদু গোস্ত, পোলাও, ডাল, ভাত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে দুপুরের খাবার খাওয়া হয়। এছাড়া বাংলাদেশিরা যার যার পছন্দ মতো রকমারি ফল ও তরমুজ কেটে গ্রীষ্মের তৃষ্ণা নিবারণ করেন। 

দিনের শেষ ভাগে আকর্ষণীয় রাফেল ড্রতে বেশ কিছু পুরস্কার জিতে নেন বাংলাদেশিরা। এতে প্রথম পুরস্কার পঞ্চাশ ইঞ্চি মাপের একটি রঙিন টেলিভিশন স্পনসর করেন আটলান্টার আবাসন ব্যবসায়ী এনামুল হক। এটি পান মিসেস লিলি। দ্বিতীয় পুরস্কার হিসেবে ২৪ ইঞ্চি এইচপি এইচডি মনিটর দেন জি জি কালেকশনের মালিক রিজওয়ানা রুমু। এসময় ‘এএ ইউএস মর্টগেজ’ প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী প্রধান মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া, বেঙ্গলী বয়েস কালচারাল স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়ার পক্ষ থেকে মহিন উদ্দিন দুলালসহ অন্যান্য স্পনসররা সমিতির কর্মকর্তাদের সঙ্গে পুরস্কার দেন।

বনভোজন প্রাঙ্গনে মনোমুগ্ধকর সংগীতের মূর্ছনায় প্রাণের চাঞ্চল্য ছড়িয়ে ছিল সারাক্ষণ। আটলান্টার প্রতিশ্রুতিশীল শিল্পী তানজিলা ইসলাম তৃষা, তাসকিনা তাজিব, আয়োজক সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক সৈকত প্রধান, মোসাম্মৎ আরজু গান গেয়ে সবাইকে মাতিয়ে রাখেন।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা কামাল মাহমুদ সমাপনী বক্তব্যে বনভোজনে অংশগ্রহণের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, “জর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতি জর্জিয়ার সব প্রবাসী বাংলাদেশিদেরই সংগঠন। আমরা কতিপয় প্রতিনিধি এর সেবক মাত্র। এভাবে আপনাদের সবার সহযোগিতা ও অংশগ্রহণে ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে এ ধরনের আয়োজন অব্যাহত থাকবে।”

সঙ্গঠনটির সাধারণ সম্পাদক এ এইচ রাসেলের পরিচালনায় বনভোজনের বিভিন্ন দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন দুই সহ সভাপতি আরিফ আহমেদ ও নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ রহমান রুবন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাদমান সুমন, অর্থ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সৈকত প্রধান, ক্রীড়া সম্পাদক লিওন বিশ্বাস, কার্যকরী সদস্য সুহেল হাসান চৌধুরী, মোসাম্মৎ আরজু, মোসাম্মৎ নাহার, এ আর বাদল, রনদা প্রসাদ চৌধুরী ও সদস্য মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া, এনামুল হক, মহিউদ্দিন দুলাল, ইমদাদুল ইসলাম, নূর ভূঁইয়া, মারুফ ভূঁইয়া এবং ফয়সল শেখ।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!