২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

আটলান্টায় প্রবাসীদের ঈদুল আজহা উদযাপন

  • রুমী কবির, জর্জিয়া প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-12 10:18:21 BdST

bdnews24

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টা শহরে ঈদুল আজহা উদযাপন করেছেন সেখানে বসবাসরত বাংলাদেশিরা।

রোববার দেশটির দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য জর্জিয়ার বিভিন্ন মসজিদ ও খোলা ময়দানে ঈদের নামাজ থেকে স্বদেশ ও প্রবাসে থাকা মানুষের কল্যাণ কামনা করেন তারা।

প্রতিটি ঈদ জামাতে প্রবাসীদের অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, লা ইলাহা ইল্লাললাহু, আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, ওয়া লিল্লাহিল হামদ ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে প্রতিটি মসজিদ ও ঈদগাহ প্রাঙ্গণ। ঈদের এ আনন্দের জোয়ারে জর্জিয়ার বাংলাদেশি কমিউনিটি সম্প্রীতির বন্ধনকে আরও মজবুত করার অঙ্গিকারে বরাবরের মতো এবারও প্রাণের উত্তাপে উচ্ছ্বল হয়েছে।

শিশু-কিশোরদের ঈদের আনন্দের কোন কমতি ছিল না। ঈদের আগের দিন সন্ধ্যায় বেশ কয়েকটি স্থানে ইতোমধ্যে শিশু ও কিশোরীরা একত্র হয়ে মেহেদির শৈল্পিক সৌন্দর্যে নির্মল হাতে সৃষ্টি করেছে নানা আলপনার আঁকিঝুঁকি।এছাড়া দিনভর একে অপরের মধ্যকার কুশল-বিনিময়, কলাকুলি আর প্রাণ-খোলা জমপেশ আড্ডায় সরব ছিল এবাড়ি ওবাড়ি ও অ্যাপার্টমেন্টের বাসাগুলোতে।

এবারের ঈদে জর্জিয়ার বিভিন্ন মসজিদ ও সামাজিক সংগঠনগুলোর উদযোগে ঈদুল আজহার নামাজের আয়োজন করা হয়েছিল। রাজ্যের প্রায় পঞ্চাশোর্ধ মসজিদে ঈদের জামাত সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে ঈদের প্রধান জামাতটি অনুষ্ঠিত হয়েছে আটলান্টার ডাউন টাউনের আল ফারুখ মসজিদে পর পর দুইটি জামাতে।

আটলান্টার গুইনেট কাউন্টির ইনফিনিটি এনার্জি ফোরাম (সাবেক গুইনেট সিভিক সেন্টার) এর বিশাল পরিসরের মিলনায়তনে এবছর তিনটি জামাতের আয়োজন করা হয়েছে। ডোরাভিলের বাংলাদেশি ব্যবস্থাধীন আত তাকওয়া মসজিদের খোলা প্রাঙ্গনে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে পর পর দুইটি।

এছাড়া লরেন্সভিলের জর্জিয়া ইসলামিক সেন্টার মসজিদে, আলফারেটার ইসলামিক সেন্টার অব নর্থ ফুলটন মসজিদে, মেরিয়েটা ইবাদুর রহমান দাওয়াহ্ সেন্টারে, আটলান্টা মসজিদ আল ইসলামে, মসজিদ আল মুমিনে, গ্লোবাল মল সংলগ্ন মদিনা মসজিদে, বিউফোর্ড হাইওয়ে মসজিদ আবু বকরসহ বিভিন্ন মসজিদ ও কমুনিটি সেন্টারে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নামাজ শেষে বাংলাদেশিরা কোরবানির উদ্দেশ্যে ছুটে গেছেন শহর থেকে দূরের পশু খামারগুলোর দিকে। আবার কেউ কেউ গ্রোসারি স্টোরগুলোতেও অগ্রিম কোরবানির সব ব্যবস্থা নিয়ে রেখেছেন যাতে ঈদের পরদিন বা দুই একদিনের মধ্যে গোস্ত পেতে পারেন। বরাবরের মতো অসংখ্য পরিবার স্বদেশে কোরবানির ব্যবস্থা নিয়েছেন স্বজনদের সঙ্গে।

ঈদকে সামনে রেখে বাংলাদেশি কমিউনিটির অনেকেই কাজ থেকে আগাম ছুটি নিয়ে নিয়েছেন। তবে এবারে রোববার ঈদের দিনক্ষণ ছিল বলে অনেকেরই সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় ঈদের নামাজ আদায়ে মুসুল্লিদের অংশগ্রহণ ছিল বেশি।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!