ধর্ষণ মামলায় যুক্তরাষ্ট্রে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

  • নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-12-06 14:56:52 BdST

bdnews24
লুৎফর রহমান হিমু (৩১)

ধর্ষণের মামলায় আওয়ামী লীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখার এক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে নিউ ইয়র্ক পুলিশ।

তার নাম লুৎফর রহমান হিমু (৩১)। তিনি পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, বসবাস করেন ফিলাডেলফিয়ায়।

রোববার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ১৩ জানুয়ারি কুইন্স ক্রিমিনাল কোর্টে হাজিরার তারিখ দিয়ে স্থানীয় আদালত তাকে সোমবার জামিন (সুপারভাইজ রিলিজ) দিয়েছে বলে জানান ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নির কমিউনিকেশন্স ডাইরেক্টর ইকিমুলিসা লিভিংস্টন।

মামলার বিবরণে বলা হয়, রোববার ভোর রাতে কুইন্সে ১৪৪-১৫ লিবার্টি অ্যাভিনিউতে অবস্থিত কমফোর্ট ইন হোটেলে ৩৪ বছর বয়সী এক নারীকে ধর্ষণসহ শারীরিক নির্যাতন করেছেন হিমু। পেশায় ব্যাংক কর্মকর্তা ওই নারী দুই সন্তানের মা।

তবে ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে হিমু বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সে আমার বেস্ট ফ্রেন্ড। তার সঙ্গে আমার সম্পর্কের কথা ওর পরিবারের সবাই জানে। ফিলাডেলফিয়ায় আমার বাসায়ও গেছে সে। তার দুই সন্তানের সঙ্গেও আমার সুন্দর সম্পর্ক।

“সে ব্যাংকে চাকরি করলেও মাঝেমধ্যেই সুন্দরি প্রতিযোগিতায় অংশ নেন অথবা অর্গানাইজারের দায়িত্ব পালন করেন। আমি ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে তার সঙ্গে মধুর সম্পর্ক তৈরি হয়েছে।”

এদিকে পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের বলেন, “হিমু কখনোই আওয়ামী লীগ কিংবা যুবলীগের কর্মী-সংগঠক ছিলেন না। তাকে আমরা সাংগঠনিক সম্পাদক পদ দিতে বাধ্য হয়েছি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানের নির্দেশে।”

পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য যুবলীগের সভাপতি আলিমউদ্দিনও একই অভিযোগ করলে অভিযোগ সম্পর্কে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, “হিমু পেনসিলভেনিয়া স্টেট কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক। তার ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। সেটি ওই স্টেটের কর্মকর্তাদের ব্যাপার।”

পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের জানান, কার্যকরী কমিটির বৈঠকে হিমু প্রসঙ্গ উত্থাপিত হবে। স্বেচ্ছায় সে পদত্যাগ না করলে আমরা তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেবো।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!