বড়দিন উপলক্ষে ইতালিতে বাংলাদেশিদের প্রস্তুতি

  • সাইফুল ইসলাম মুন্সী, ইতালি প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-12-14 16:38:06 BdST

খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব বড়দিনকে কেন্দ্র করে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে ইতালিকে, নানা প্রস্তুতি নিচ্ছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরাও।

চলতি মাসের ২৫ তারিখে ক্রিসমাস ডে বা বড়দিন হলেও মাসের শুরুর দিন থেকেই দেশটির প্রতিটি সড়কের চিত্র পাল্টে গেছে নানা কারুকার্যে। প্রতিটি গির্জায় চোখ ধাঁধানো আলোকসজ্জা, শপিংমল আর রেস্টুরেন্টের সামনে ক্রিসমাস বৃক্ষ আর প্রতিটি সড়কের দুই পাশে নানা রঙের কাগজের বাহারি নকশার ফুল দিয়ে সাজানো হয়েছে।

‘প্রবাসী বাংলাদেশি খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন’ ও ‘বাংলাদেশ খ্রিস্টান মহিলা সমিতির’ যৌথ উদ্যোগে দেশটিতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে বড়দিন পালনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানান ‘প্রবাসী বাংলাদেশি খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের’ সাংগঠনিক সম্পাদক লিতা দি সিলভা।

২৫ ডিসেম্বর দেশটির বেরারদি গির্জায় সকাল থেকেই খ্রিস্টধর্মের বাঙালিদের নিয়ে উপাসনা, ভোজ, উপহার প্রদান, সঙ্গীত ও বড়দিনের কার্ড বিনিময়সহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, “ইতালিতে প্রায় চারশোর বেশি খ্রিস্টান ধর্মের প্রবাসী রয়েছেন। প্রায় এক যুগের বেশি সময় ধরে আমাদের এই সংগঠনটি এসব মানুষদের নিয়ে বড়দিনসহ খ্রিস্টধর্মের সব উৎসব পালন করে আসছে। আমরা সবাই এইদিনে একত্রিত হয়ে প্রভুর কাছে প্রার্থনা করব।”  

তিনি আরও বলেন, “ইতালিজুড়েই রয়েছে গির্জা। এজন্য আমাদের আলাদা কোন গির্জা বা উপাসনা করার স্থানের প্রয়োজন হয় না। এখানকার প্রতিটা গির্জাতেই আমরা উপাসনা করতে পারি। এখানে আমরা বাঙালি ফাদারদের ইনচার্জ ‘ফাদার রিগেনের’ নেতৃত্বে উপাসনা করে থাকি।”

বড়দিনকে কেন্দ্র করে ইতালির বাণিজ্যিক শহর মিলানের প্রধান গির্জা ‘পিয়াজ্জা দি ডুয়োমোকে’ বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। সেইসঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বন্দুকধারীদের হামলার কথা মাথায় রেখে দর্শণার্থীদের নিরাপত্তার জন্য পুরো এলাকাকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে রাখা হয়েছে।

এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে দেশটির প্রতিটি শপিংমলে রয়েছে ৪০ থেকে ৫০ শতাংশ মূল্যছাড়। তাই এসব শপিংমলগুলোতে দেখা যায় ক্রেতাদের ভিড়।

বিশেষ করে জামাকাপড়ের পাশাপাশি বড়দিন ও নতুন বছরের শুভেচ্ছা কার্ড, সান্তাক্লজের লাল টুপি ও লালজামা, জপমালা, ক্রিসমাস বৃক্ষ ও যীশু-মরিয়ম-জোসেপের মূর্তির দোকানগুলোতে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!