স্ত্রীকে হত্যার হুমকির অভিযোগে নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশি পুলিশ অফিসার গ্রেপ্তার

  • নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-17 22:35:25 BdST

bdnews24
স্ত্রী রোকশানা মির্জার সাথে সজল রায়। ছবি-সংগ্রহ।

কণ্ঠশিল্পী স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে হত্যার হুমকির অভিযোগে নিউ ইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের কর্মরত এক প্রবাসী বাংলাদেশি গ্রেপ্তার হওয়ার পর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। 

শুক্রবার ভোররাতে নিউ ইয়র্ক সিটির কুইন্স ভিলেজের বাসা থেকে অফিসার সজল রায় (৩০)-কে আটক করার পর কুইন্স ক্রিমিনাল কোর্টে সোপর্দ করা হলে ওইদিনই তার জামিন হয় বলে নিউ ইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে।

তবে তাকে মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত বেতনহীন সাসপেনশনে রাখা হয়েছে বলে নিউ ইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এনওয়াইপিডি) সূত্র জানিয়েছে।

আদালত সূত্র জানায়, ১ মার্চ পুলিশ অফিসার সজলের সঙ্গে তার স্ত্রী রোকসানা মির্জা (২৮) এর পারিবারিক কলহ হলে সজল তার স্ত্রীর মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

তা নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে সজলের বিরুদ্ধে তার স্ত্রী কোনও অভিযোগ না আনলেও প্রায় দেড়মাস পর গত ১৪ মে বিষয়টি নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোররাতে কুইন্সের বাসা থেকে সজলকে আটক করেন সহকর্মী পুলিশের একটি টিম।

সজল রায়ও একজন কণ্ঠশিল্পী। সজল রায় জানিয়েছেন যে, তার বিরুদ্ধে আনা স্ত্রীর অভিযোগ সত্য নয়।

সজল রায় ২০১৬ সালে এনওয়াইপিডিতে যোগ দেওয়ার পর সম্প্রতি তাকে ব্রুকলিনে ট্র্যাঞ্জিট কমান্ডের দায়িত্ব দেয়া হয়।

এর আগে উত্তর আমেরিকায় ২০১২ সালে ‘স্টার সার্চ ইউএসএ-২০১২’ নামের এক গানের প্রতিযোগিতামূলক আসরে অংশ নিয়ে মানিকগঞ্জের সজল রায় চ্যাম্পিয়ন হয়ে ‘হীলসাইড হুন্ডা’ কোম্পানি থেকে একটি মোটর সাইকেল পেয়েছিলেন পুরস্কার হিসেবে।

এর কয়েক বছর পর ঢাকা থেকে নিউ ইয়র্কে আসা কণ্ঠশিল্পী রোকশানা মির্জার সাথে পরিচয়ের সূত্রে দু’বছর আগে বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন।

রোকশানা মির্জা তারই স্পন্সরে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী নাগরিকত্বের আবেদন করেছেন।  তবে তা পেয়েছেন কিনা এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

মামলার পাশাপাশি সজলের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্তও চলছে।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!