নিউ ইয়র্কে অবরুদ্ধ প্রবাসীদের পাশে ডজনখানেক সংগঠন

  • নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-18 13:30:25 BdST

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে অবরুদ্ধ প্রবাসীদের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশিদের প্রায় ডজনখানেক সংগঠন।

এর অন্যতম হচ্ছে ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোসিয়েশন ইন নর্থ আমেরিকা (ফোবানা), জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার, জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশি বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন (জেবিবিএ), নিউ ইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, কোভিড-১৯ কমিউনিটি ফুড ড্রাইভ, জ্যামাইকা ফ্রেন্ডস সোসাইটি, পিপলএনটেক, মজুমদার ফাউন্ডেশন ও নাভা।

টানা প্রায় ৬০ দিনের বেকার জীবনে অতিষ্ঠ হয়ে উঠার পাশাপাশি অনেক প্রবাসী পরিবারেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী থাকায় নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য-সামগ্রি কিনতে বাসার বাইরে যেতে পারছেন না অনেকে। এমন অসহায় প্রবাসীদের মধ্যে খাদ্য-সামগ্রি বিতরণ করছে সংগঠনগুলো।

ফোবানা কর্মকর্তা জাকারিয়া চৌধুরী ও আবির আলমগীর

ফোবানা কর্মকর্তা জাকারিয়া চৌধুরী ও আবির আলমগীর

২০ মার্চ থেকে লকডাউনে সারা যুক্তরাষ্ট্রের মতো নিউ ইয়র্ক সিটিও। এ সিটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৯৮ বাংলাদেশি, অনেক প্রবাসী বিভিন্ন হাসপাতালের আইসিইউতে রয়েছেন। আবার অনেকে বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে গত সপ্তাহ থেকে মৃত্যুর হার ও হাসপাতালে নতুন রোগী ভর্তির সংখ্যা কমতে থাকায় অন্য কমিউনিটির মতো বাংলাদেশিদের মধ্যেও কিছুটা স্বস্তি দেখা যাচ্ছে।

তবে রমজান শুরু হওয়ার পর এ পরিস্থিতিতে অনেক প্রবাসী অর্থ সংকটে পড়েছেন। কারণ, সপ্তাহে কমপক্ষে ৬০০ ডলার করে বেকার ভাতার আবেদন করেও নিয়মিত তা পাচ্ছেন না অধিকাংশ আবেদনকারিই। বাসা ভাড়া ২০ অগাস্টের মধ্যে না দিলেও মালিক তাগাদা দিতে পারবেন না বলে স্টেট গভর্নর নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন। তবু দৈনিক বাজার জোগাতেই হিমশিম খাচ্ছেন অনেক প্রবাসী। এমন কয়েকশ প্রবাসী যাদের অধিকাংশই অবৈধ তাদের তালিকা করে রোজার আগে থেকেই বেশ কয়েকটি সংগঠন মাঠে নেমেছে।

জ্যামাইকা ফ্রেন্ডস সোসাইটির নেতারা

জ্যামাইকা ফ্রেন্ডস সোসাইটির নেতারা

ফোবানার পক্ষ থেকে নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ করা হয়েছে। সর্বশেষ রোববার ফোবানার নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান জাকারিয়া চৌধুরী ও নির্বাহী সদস্য আবির আলমগীরের নেতৃত্বে প্রায় অর্ধ শতাধিক পরিবারের বাসায় খাদ্য সামগ্রির প্যাকেট পৌঁছে দেওয়া হয়। একইদিন জ্যাকসন হাইটসে খাবার বাড়ি আঙ্গিনা থেকে জেবিবিএ ও নাভাসহ কয়েকটি সংগঠনের ব্যানারে খাদ্য-সামগ্রির প্যাকেট বিতরণ করা হয়।

জেবিবিএর নেতা ফাহাদ সোলায়মান, নাভার নেত্রী রোকেয়া আকতারসহ নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় স্টেট অ্যাসেম্বলিওম্যান ক্যাটালিনা ক্রুজ। এ কর্মসূচিতে স্টেট অ্যাসেম্বলিওম্যানের অফিসও খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। প্রায় আড়াইশ প্রবাসীকে এসব প্যাকেট দেওয়ার পাশাপাশি বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার বাসায়ও প্যাকেট পৌঁছে দেন ‘যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের’ সদস্য শুভ রায়। এর আগে অসহায় প্রবাসীদের বাসায় খাদ্য-সামগ্রির প্যাকেট পৌঁছে দেয় ‘কোভিড-১৯ কমিউনিটি ফুড ড্রাইভ’ নামে একটি সংগঠন।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!